ঝিনাইদহে নিজের বুুদ্ধিমত্তায় অপহরণ থেকে বেঁচে গেলো কিশোরী

ঝিনাইদহের চোখ-
ঝিনাইদহ শহরে অপহরণকারীদের কাছ থেকে পালিয়ে বাঁচলো শাহিনা (১৫) নামের দশম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী। সে চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার বেষ্টপুর গ্রামের শরিফুল ইসলামের মেয়ে ও স্থানীয় মহিলা পাইলট গার্লস স্কুলের শিক্ষার্থী। ৮ নভেম্বর সোমবার তাকে ঝিনাইদহ শহর থেকে উদ্ধার করে পুলিশ।

পুলিশ ও শাহিনার পরিবার সূত্র জানায়, সোমবার বিকেলে চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা থেকে শাহিনাকে জোর করে একটি মাইক্রোবাসে তুলে নেয় একদল দুর্বৃত্ত। সেখান থেকে তারা তাকে ঝিনাইদহ শহরে নিয়ে আসেন। শহরের ব্যাপারীপাড়া সড়কে পৌঁছালে মাইক্রো থামিয়ে অপহরণকারীরা তার শরীরে কিছু একটা পুশ করার চেষ্টা করেন। এসময় শাহিনা কৌশলে মাইক্রোবাস থেকে নেমে একটি দোকানে আশ্রয় নেয়। খবর পেয়ে ঝিনাইদহ সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল বাশার তাকে থানায় নিয়ে আসেন।

ঝিনাইদহ সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল বাশার জানান, ২০ দিন আগেও অপহরণের শিকার হয়েছিল শাহিনা। সে যাত্রায় কক্সবাজার থেকে তাকে উদ্ধার করে পুলিশ। সোমবার আবার তাকে অপহরণের চেষ্টা করা হয়। তবে নিজের বুুদ্ধিমত্তায় বেঁচে গেছে মেয়েটি। তিনি আরও বলেন, আমরা সিসিটিভির ফুটেজ দেখে অপহরণকারীদের চিহ্নিত করার চেষ্টা করছি। সোমবার রাতেই দামুড়হুদা পুলিশের উপস্থিতিতে শাহিনাকে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

The post ঝিনাইদহে নিজের বুুদ্ধিমত্তায় অপহরণ থেকে বেঁচে গেলো কিশোরী appeared first on Jhenidaherchokh.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *