ঝিনাইদহে বিয়ের দাওয়াত না পেয়ে বাড়িতে হামলা

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় বিয়ের দাওয়াত না পেয়ে বসত বাড়িতে হামলার ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার সকালে উপজেলার উমেদপুর ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এসময় ভাংচুর করা হয় কমপক্ষে ১০টি বাড়িঘর। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন দুই জন। আহতের শৈলকুপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, সামাজিক আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গোবিন্দপুর গ্রামের ইউপি সদস্য মোনায়েম ও মাতব্বর কিবরিয়ার মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। তারা দুইজনই স্থানীয় আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। শুক্রবার সকালে কিবরিয়ার বিয়ের বরযাত্রী যাওয়াকে কেন্দ্র করে মোনায়েমের লোকজন কিবরিয়ার সমর্থকদের ওপর হামলা চালায়। পরে উভয় পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শুরু করে। এসময় ওই গ্রামের তুতা ও বাচ্চুর স্ত্রী সোনিয়া আহত হয়। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

মাতব্বর কিবরিয়া জানান, শুক্রবার তার বিয়ের অনুষ্ঠানে প্রতিপক্ষকে দাওয়াত না দেওয়ায় হামলা চালানো হয়। প্রতিপক্ষরা তার সমর্থক মেহের মন্ডল, নজির মন্ডল, সবুর মন্ডল, গোলাম রব্বানীর বাড়িসহ ১০টি বাড়িঘর ভাংচুর ও লুটপাট করে।

শৈলকুপা থানার (ওসি) কাজী আয়ুবুর রহমান স্টারমেইল টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, সামাজিক আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গোবিন্দপুর গ্রামে বেশ কয়েকটি বাড়ীঘরে ভাংচুররর ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় তিন জনকে আটক করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here