হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ঝিনাইদহের বৃদ্ধকে রাস্তায় ফেলে রেখে গেলেন আয়া

ঝিনাইদহের চোখ-
ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে এক বৃদ্ধ রোগীকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার সকালে ট্রলিতে করে ওই বৃদ্ধকে এনে হাসপাতালের সামনের সড়কে খোলা আকাশের নিচে ফেলে রাখা হয়।

পরে স্থানীয়রা ৯৯৯-এ ফোন করে। পুলিশ এবং সাংবাদিকদের উপস্থিতি টের পেয়ে ওই রোগীকে তড়িঘরি করে আবার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। ওই বৃদ্ধের নাম মোশারফ হোসেন (৬০)। তার বাড়ি ঝিনাইদহের শৈলকুপায়।

জানা যায়, বৃদ্ধ মোশারফ ঝিনাইদহ থেকে ফরিদপুরে দিনমজুরের কাজে এসেছিলেন। ২৫ দিন আগে জেলার মধুখালী উপজেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় মারাত্মক আহত হন তিনি। মাথায় এবং শরীরের বিভিন্নস্থানে আঘাতপ্রাপ্ত হন। প্রথমে মধুখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে হাসপাতালের চিকিৎসক তাকে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। এরপর থেকে গত ২২ দিন ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি।

বৃদ্ধ মোশারফ হোসেন বলেন, অনেক অনুনয়-বিনয় করলেও হাসপাতালের লোকজন আমাকে চিকিৎসাসেবা দেয়নি। একটি ট্যাবলেটও দেয়নি। পরে সকালে রাস্তার মধ্যে ফেলে দিয়ে গেছে।

স্থানীয় বাসিন্দা ব্যবসায়ী আসলাম শেখ বলেন, সকালে দোকানে এসে দেখি সামনের সড়কে একজন বৃদ্ধ লোক পড়ে রয়েছেন। কাছে গিয়ে দেখি কাতরাচ্ছেন। পরে বিস্তারিত জানতে পারি। ৯৯৯-এ ফোন করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাকে উদ্ধার করে।

ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) সুজন মিয়া বলেন, হাসপাতালের সামনের সড়কে ওই বৃদ্ধকে ফেলে রাখা হয়। স্থানীয় এলাকাবাসী ৯৯৯-এ ফোন করলে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে। পরে হাসপাতালের আয়া এসে পুনরায় তাকে নিয়ে যায়।

ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মো. সাইফুর রহমান বলেন, বিষয়টি আমার জানা নেই। খোঁজ নিয়ে দেখব। যে আয়া এ ঘটনা ঘটিয়েছেন, তার বিরুদ্ধে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

The post হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ঝিনাইদহের বৃদ্ধকে রাস্তায় ফেলে রেখে গেলেন আয়া appeared first on Jhenidaherchokh.

Leave a Reply

Your email address will not be published.