হরিণাকুন্ডুতে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনে মনোনয়ন পত্র কেনায় মারপিট

হরিণাকুন্ডুতে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনে
মনোনয়ন পত্র কেনায় মারপিট

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃ
ঝিনাইদহের হরিনাকুন্ডুতে একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনে মনোনয়ন পত্র কেনায় সাবেক চেয়ারম্যান মঞ্জুর আলম মনজেরের লোকজন মারপিট করেছে প্রার্থীকে। বুধবার হরিণাকুন্ডু উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসে মনোনয়ন কিনতে আসলে কাজী রাসেল আহম্মেদ মিন্টু নামে ওই প্রার্থীকে বেধঢ়ক মারপিট করা হয় বলে অভিযোগ। জানা গেছে, আগামী ১৯ মার্চ হরিনাকুন্ডু উপজেলার ধুলিয়া আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সে মোতাবেক গত ২৮ ফেব্রæয়ারি নির্বাচনি তফশিল ঘোষনা করা হয়। যার মনোনয়ন ফর্ম বিক্রি করা হচ্ছিল উপজেলা মাধ্যমিক অফিসে। বুধবার সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত মনোনয়ন কিনতে ওই এলাকার কাজী রাসেল আহম্মেদ মিন্টু ও আরিফুল ইসলাম ফর্ম কিনতে আসলে আগে থেকে মনজেরের ভাড়াটিয়া লোকজন অফিস চত্বরে বসিয়ে রাখা হয়। বিকেলে ফর্ম কিনতে গেলে উপজেলা মোড়ে মিন্টুকে ধাওয়া করে। সেখান থেকে একটি দোকানে আশ্রয় নিলে তাকে বেধঢ়ক পিটিয়ে গুরুতর আহত করা হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মিন্টুকে উদ্ধার করে। ভুক্তভোগী কাজী রাসেল আহম্মেদ মিন্টু অভিযোগ করে বলেন, তিনি ধুলিয়া আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি পদে নির্বাচনের জন্য ফর্ম কিনতে যায়। সেখানে গিয়ে দেখি সাবেক চেয়ারম্যান মঞ্জুর আলম মনজেরের অর্থের বিনিয়ে কিছু গুন্ডাকে ভাড়া করে রেখেছে। ভাড়াটিয়া গুন্ডা বাহিনিরা তাকে বলে তুই ফর্ম কিনতে পারবি না। আমরা মনজেরর লোক। এক মাত্র মনজের ছাড়া কেও কিনবে না। সেই ফর্ম কিনে সভাপতি পদে বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় নির্বাচিত হবে। এ বিষয়ে তিনি হরিনাকুন্ডু থানা ও মাধমিক শিক্ষা আফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন। তিনি এ নির্বাচন বন্ধের জন্য প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কমনা করেছেন। আরেক প্রার্থী আরিফুল ইসলাম বলেন, তিনিও ফর্ম কিনতে যেয়ে মনজেরের লোকজনের বাধার মুখে ফিরে এসছেন। বিষয়টি নিয়ে সাবেক চেয়ারম্যান মঞ্জুর আলম মনজের বলেন, আমি নিজে সভাপতি প্রার্থী। আপনারা এ বিষয়টি নিয়ে লেখালেখি করবেন না। এ ব্যাপারে হরিনাকুন্ডু উপজেলা শিক্ষা অফিসার ফজলুল হক বলেন, আমি একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। আমার অফিসের ভিতর কোন ঘটনা ঘটেনি। বাহিরে যদি কিছু ঘটে সেটা আমার বিষয় না। তবে সকল বিষয়টি আমি থানার ওসি ও ইউএনওকে অবগত করেছি। হরিনাকুন্ডু থানার ওসি আব্দুর রহিম মোল্লা বলেন, আমি বিষয়টি অবগত আছি। ঘটনাস্থলে কয়েক দফা পুলিশ পাঠিয়েছি। হরিনাকুন্ডু উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) সেলিম আহম্মেদ বলেন, সকল বিষয়ে আমি অবগত আছি। মনোনয়ন র্ফম ক্রয়ের জন্য সুষ্ঠ পরিবেশ বজায় রাখতে ওসি ও মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারকে নির্দেশনা দিয়েছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.