স্বামী-স্ত্রী বেকার ঋণগ্রস্ত, স্বামী যুগল ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

বরগুনার বেতাগী উপজেলার মোকামিয়া ইউনিয়নের জোয়ার করুনা গ্রামে স্বামী-স্ত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার (১২ মার্চ) দুপুরে বিষয়টি জানিয়েছেন। বরগুনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মেহেদী হাসান। নিহত মো. আসলাম (২১) জোয়ার করুনা এলাকার মনির হাওলাদারের ছেলে ও তামান্না আক্তার (১৯) ওই এলাকার হিরু হাওলাদারের মেয়ে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, একবছর আগে প্রেমের সম্পর্কের জেরে পরিবারে অমতে তারা বিয়ে করেন। বিষয়টি এখন পর্যন্ত পরিবার মেনে নেয়নি। আসলাম বাড়িতেই আলাদাভাবে স্ত্রী তামান্নাকে নিয়ে বসবাস করতেন। স্বামী যুগল বেকার থাকায় তারা অনেক ঋণগ্রস্ত হয়ে পড়েন। ঋণের টাকা ফেরত দিতে না পেরে হতাশায় নিজ ঘরে এক দড়িতে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন তারা।

এ বিষয়ে আসলামের পরিবার কোনো মন্তব্য করেনি। তবে তামান্নার বাবা হিরু হাওলাদারের দাবি তাদের হত্যা করা হয়েছে। হিরু হাওলাদার বলেন, মেয়ে ও জামাইডারে মাইন্না নেলে এতো কিছু হইত না। ওগো মাইরা ফেলা হইছে। আমি সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার চাই।

নিকটবর্তী থানার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সর্কেল) মেহেদী হাসান বলেন, স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হবে।

বার্তাবাজার/এম.এম

Leave a Reply

Your email address will not be published.