স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের অবাধ ঘোরাফেরার চিত্র উদ্বেগজনক হারে বেড়েছে

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার বড়িকান্দি ইউনিয়নের ধরাভাঙ্গা এমপি টিলা বিনোদন ও ভ্রমনের স্থান গুলোতে ক্লাশ ফাঁকি দিয়ে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের অবাধ ঘোরাফেরার চিত্র উদ্বেগজনক হারে বেড়েছে। ক্লাশে না গিয়ে ওইসব স্পটে শিক্ষার্থীরা আড্ডায় মগ্ন হচ্ছে।

এমনকি প্রকাশ্যেই তারা জড়িয়ে পড়ছে আপত্তিকর ঘটনায়। যা দেখে উদ্বিগ্ন হচ্ছে সাধারন মানুষ। পাশাপাশি বৃদ্ধি পাচ্ছে সামাজিক অবক্ষয়। অবশ্য এমন পরিস্থিতির জন্য শিক্ষার্থীদের অভিভাবক, শিক্ষক, এবং সংস্কৃতিকে দায়ি করছেন বিশেষ মহল। এমনকি প্রশাসনের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তুলছেন অনেকে।

তবে বর্তমান চিত্র পাল্টে দিতে ক্লাশ চলাকালে বিনোদন ও ভ্রমনের স্থান গুলোতে মনিটরিং ও নিয়মিত অভিযানের ব্যবস্থা অব্যাহত রাখার কথা জানিয়েছেন উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি)ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মোশারফ হোসাইন।

সরেজমিনে দেখাগেছে, সম্প্রতি সময়ে সলিমগঞ্জ ও বড়িকান্দি ইউনিয়নের প্রতিটি বিনোদন ও ভ্রমনের স্থান গুলোতে ক্লাশ চলাকালিন সময়ে শিক্ষার্থীদের অবাধ ঘোরা ফেরা এবং মেলামেশার চিত্র উদ্বেগজনক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। স্কুল-কলেজের ইউনিফর্ম পড়েই নির্জন স্থানে বসে গল্পগুজব এবংআড্ডায় মগ্ন হচ্ছে। কোন কোন সময় চোখে পড়ে যায় বিনোদন কেন্দ্র গুলোতে ইউনিফর্ম পড়া শিক্ষার্থীদের অবৈধ এবং আপত্তিকর মেলামেশার চিত্রও।

বিশেষ করে ধরাভাঙ্গা এমপিটিলা, নদীর পার ও বিভিন্ন কফি হাউজে এমন চিত্র যেন পিছু ছাড়ছে না। তবে এর মধ্যে ধরাভাঙ্গা এমপি টিলা ক্লাস চলাকালিন সময়ে শিক্ষার্থীদের অবাধ এবং আপত্তিকর মেলামেশার চিত্র যেন নিত্য দিনের রুটিন ও নিয়মে পরিনত হয়েছে।

সলিমগঞ্জ এলাকায় অবস্থিত সলিমগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, সলিমগঞ্জ এ. আর. এম. উচ্চ বিদ্যালয়, সলিমগঞ্জ কলেজ, যার ফলে ওইসব স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিই বেশি দেখা যাচ্ছে এমপি টিলা ও বিভিন্ন কফি হাউজে। তাছাড়া ইউনিফর্ম পড়া অবস্থায় দেখা মিলছে সলিমগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রীদেরও। শিক্ষার্থীরা ক্লাশ ফাঁকি দিয়ে ধরাভাঙ্গা এমপি টিলাতে ঘোরা ফেরা এবং আড্ডায় মগ্ন হলেও সেদিক দৃষ্টি কাড়ছে না বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের।

সরেজমিনে দেখা যায়, সলিমগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ক্লাশ চলাকালে ইউনিফর্ম পড়া শিক্ষার্থীদের অবাধ মেলামেশার চিত্র মানুষকে ভাবিয়ে তুলেছে। সলিমগঞ্জ কলেজ সাথে কফি হাউজের চিত্র এতটাই ভয়াবহ যে তাদের উৎপাতে পরিবার পরিজন নিয়ে কেউ ঘুরতে আসাটাও এখন লজ্জা ও বিচলিত হতে হচ্ছে। কিন্তু কফি হাউজের কর্তৃপক্ষ তাদের বাধা দিচ্ছে না। বরং লোভে পড়ে স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীদের ইউনিফর্ম পড়া অবস্থাতেই কফি হাউজে প্রবেশ এমনকি আপত্তিকর মেলামেশার সুযোগ করে দিচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

আক্তারুজ্জামান/বার্তাবাজার/এম.এম

Leave a Reply

Your email address will not be published.