স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে আজ সতর্ক বাংলাদেশ

টানা তিন টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়ের আত্মবিশ্বাস নিয়ে ঢাকা ছেড়েছিল বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। পূর্ণ শক্তির দল না খেললেও বিশ্বকাপের প্রস্তুতি পর্বে টানা দুই হার টাইগারদের বিশ্বাসের ভিত কিছুটা নাড়িয়েছে বৈকি। বিশ্বকাপের আগে আত্মতুষ্টিতে ভোগার দেওয়াল ভেঙে দিয়েছে শ্রীলঙ্কা, আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে পরাজয়।

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ অবশ্য এমনটা মনে করেন না। তার মতে, দুই হার দলে প্রভাব ফেলেনি। ম্যাচগুলোকে প্রস্তুতির মঞ্চ হিসেবেই ধরছেন তিনি। মাহমুদউল্লাহ বলেছেন, দলের সবার আত্মবিশ্বাস আগের মতোই আছে।

আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সপ্তম আসরে বাংলাদেশের মিশন শুরু হচ্ছে আজ (১৭ অক্টোবর)। ওমানের আল-আমিরাত স্টেডিয়ামে প্রথম রাউন্ডের ম্যাচে স্কটল্যান্ডের বিরুদ্ধে মাঠে নামবে টাইগাররা। বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় শুরু হবে ম্যাচটি।

র‌্যাংকিং, ক্রিকেটীয় অবস্থান, সবকিছুতেই স্কটিশদের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ। কিন্তু ফরম্যাটটা টি-টোয়েন্টি বলেই সতর্ক থাকতে হচ্ছে মাহমুদউল্লাহদের। এখানে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে এই ফরম্যাটে অতীতের তিক্ত স্মৃতিও সতর্কতা অবলম্বনে বাধ্য করছে। ২০১২ সালে নেদারল্যান্ডের হেগে স্কটিশদের বিরুদ্ধে একমাত্র সাক্ষাতেই যে হেরেছিল বাংলাদেশ। তাই প্রতিপক্ষকে হালকাভাবে নেওয়ার ভুল করতে চান না মাহমুদউল্লাহ।

আইপিএল শেষে দলে যোগ দিয়েছেন সাকিব আল হাসান। পিঠের ইনজুরি কাটিয়ে খেলতে প্রস্তুত অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। বিশ্বকাপে নামার আগে তাই পূর্ণতা পেয়েছে টাইগার শিবির। গতকাল বাংলাদেশ সময় ৮টায় অনুশীলন করেছে বাংলাদেশ দল।

অনুশীলনের সংবাদ সম্মেলনে নিজের ইনজুরি নিয়ে মাহমুদউল্লাহ বলেছেন, ‘ইনজুরি রিকভার করেছি ৯-১০ মাস আগে যেটা ছিল এখানে আসার পর সমস্যা করে। আশা করি আজকের ম্যাচ খেলতে পারবো।’

আবুধাবিতে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচের হারকে ভুলেই আজ নতুন শুরু করতে চান মাহমুদউল্লাহ। তার বিশ্বাস, দলটা আগের ছন্দেই খেলবে। তিনি বলেছেন, ‘দুই ম্যাচে হার প্রভাব ফেলবে না। দলের আত্মবিশ্বাস আগের মতোই আছে। আমাদের বিশ্বাস আগের মতোই খেলতে পারবো।’

প্রথম রাউন্ডে বড় প্রতিপক্ষ নেই। তার পরও স্কটল্যান্ডসহ বাকি দলগুলোকে পর্যাপ্ত সম্মান দিচ্ছে বাংলাদেশ। জয়ের প্রশ্নে কোনো ছাড় নেই। নিজেদের সেরাটা দিয়েই আজ জয়ের লক্ষ্যে খেলবে টাইগাররা। গতকাল বাংলাদেশের অধিনায়ক বলেছেন, ‘এটা এমন একটা ফরম্যাট যেখানে প্রতিপক্ষকে হালকাভাবে নেওয়ার সুযোগ থাকবে না। আমাদের বিনয়ী থাকতে হবে।

ওমান ‘এ’ দলের বিরুদ্ধে প্রস্তুতি ম্যাচে ২০৭ রান করেছিল বাংলাদেশ। এমন স্পোর্টিং উইকেটই আশা করছেন মাহমুদউল্লাহ। তিনি বলেছেন, ‘কন্ডিশন ওমানের বিপক্ষে যেমন খেলেছিলাম, পিচের অবস্থা ভালো ছিল। আশা করি তেমনই থাকবে, অনেকের সঙ্গে কথা বলে জেনেছি। ’

তামিমহীন দলটার ওপেনিংয়ের ভার লিটন দাস, নাঈম শেখের ওপর। দু’জনই রানে নেই। চিন্তা এড়িয়ে অধিনায়ক অবশ্য সতীর্থদের পাশে থাকছেন। মাহমুদউল্লাহ বলেছেন, ‘টি-টোয়েন্টিতে আপনি প্রতিদিন রান করতে পারবেন না। তার মানে এই না, আপনি ফর্মে নেই

Leave a Reply

Your email address will not be published.