সরকার পদ্মা সেতু উদ্বোধনের উৎসব আনন্দে আত্মহারা: রিজভী

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী মন্তব্য করে বলেছেন, পদ্মা সেতু উদ্বোধন উৎসবের নামে শত শত কোটি টাকা ওড়ানো হচ্ছে। অথচ সিলেট, সুনামগঞ্জ, নেত্রকোণা ও উত্তরাঞ্চলসহ বন্যা উপদ্রুত এলাকাসমূহে পানিবন্দি মানুষের জন্য যে সরকারি বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে, তা একেবারেই অপ্রতুল। রোববার (১৯ জুন) নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় পদ্মা সেতু নিয়ে উৎসব বন্ধ করে বন্যাকবলিত অঞ্চলকে দুর্গত অঞ্চল হিসেবে ঘোষণা করার দাবি জানান রুহুল কবির রিজভী।

রিজভী বলেন, এমন মহা দুর্যোগের করাল গ্রাসে যখন মানুষ বিপর্যস্ত-বিপন্ন, তখন সরকার পদ্মা সেতু উদ্বোধনের উৎসব আনন্দে আত্মহারা। আমরা অবিলম্বে সরকারকে বন্যাকবলিত এলাকায় গিয়ে দুর্গত মানুষের জন্য পর্যাপ্ত ত্রাণের ব্যবস্থা করার জন্য আহ্বান জানাচ্ছি। একই সঙ্গে ওইসব অঞ্চলে যেন আর বন্যা না হয়, তার জন্য উদ্যোগ নেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি।

বিএনপির জ্যেষ্ঠ এই নেতা বলেন, এই বন্যার আরও কারণ আছে। হাওর ও নদীগুলোতে বাঁধ এবং সেতু দেওয়া হয়েছে অপরিকল্পিতভাবে। সেখানে এত দুর্নীতি হয়েছে যে, সব বাঁধ ভেঙে যাচ্ছে এবং নতুন করে যেসব রাস্তা তৈরি করা হয়েছে, তা-ও ভেঙে যাচ্ছে।

বিএনপি বন্যাদুর্গতদের সাহায্যার্থে কাজ করে যাচ্ছে জানিয়ে এই নেতা বলেন, সিলেট মহানগর, হবিগঞ্জ, সুনামগঞ্জ ও নেত্রকোণা জেলা বিএনপি বন্যাদুর্গতদের সাহায্যার্থে কাজ করে যাচ্ছে। তারা ট্রলার দিয়ে দুর্গত এলাকার লোকজনদের নিরাপদ স্থলে আনতে সহযোগিতা শুরু করেছে। বন্যার্তদের মাঝে বিএনপির পক্ষ থেকে ত্রাণ-সামগ্রীও বিতরণ করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

বার্তাবাজার/জে আই

Leave a Reply

Your email address will not be published.