October 6, 2022

জলবায়ু সুবিচারের দাবিতে উন্নত দেশগুলোকে জলবায়ু-ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোকে ক্ষতিপূরণ প্রদানের জন্য একটি দ্রুত বাস্তবায়নযোগ্য পথ নকশা প্রণয়ন এবং অগ্রাধিকার ভিত্তিতে অভিযোজন তহবিল সরবরাহের দাবি জানিয়েছেন জলবায়ু কর্মীরা।

আন্দোলনকারীরা সরকার এবং বিনিয়োগকারীদের প্রকৃতি ও পরিবেশ বিধ্বংসী কার্যক্রম, বিশেষ করে ক্ষতিকর জীবাশ্ম জ্বালানি ব্যবহারের জন্য দায়বদ্ধ করে তা থেকে সরে এসে নবায়নযোগ্য জ্বালানি প্রসারেরও আহবান জানান।

শুক্রবার শ্যামনগরের উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে জলবায়ু কর্মীরা বৈশ্বিক কার্বন নির্গমন হ্রাস ও ঐতিহাসিকভাবে দায়ী রাষ্ট্রগুলোর কাছ থেকে ক্ষতিপূরণ আদায়ের দাবি সংবলিত প্ল্যাকার্ড নিয়ে জলবায়ু ধর্মঘটে যোগ দেয়।

পরে স্কুল শিক্ষার্থীদের পরিচালিত আন্দোলন ‘ফ্রাইডেস ফর ফিউচার’এবং ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিস ও বেসরকারি সংস্থার লিডার্সের উদ্যোগে পদযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় জান্নাতুল নাঈমের সঞ্চালনায় একাত্মতা পোষণ করে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এস.এম.আতাউল হক দোলন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আক্তার হোসেন, জলবায়ু কর্মী এস এম শাহিন আলম, রাইসুল ইসলাম, মোমিনুর রহমান প্রমুখ।

ধর্মঘটে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রভাষক সাঈদ উজ জামান সাইদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান খালেদা আইয়ুব ডলি, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সানওয়ার হুসাইন মাসুম, শিক্ষক, এনজিও প্রতিনিধি, জলবায়ু কর্মী, বিভিন্ন স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা অংশ নেন।

বক্তারা বলেন, সহানুভূতি বা ক্ষতিপূরণের পরিবর্তে ন্যায়বিচার এবং দায়িত্ববোধের দাবি করি। জলবায়ু মোকাবেলার কার্যক্রমকে ত্বরান্বিত করা, অভিযোজন বা সহনশীলতা বৃদ্ধি কঠিন মনে হতে পারে, তবে এটি অত্যাবশ্যক।

কয়লা বিদ্যুতে বিদেশি অর্থায়ন বন্ধ করার প্রতিশ্রুতি দেয়ার পরেও জাপান মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পের ফেজ ২ অর্থায়নের কথা বিবেচনা করছে। তাদের উচিত কয়লা খাতে অর্থায়ন বন্ধ করে তাদের প্রতিশ্রুতি রাখা। কয়লা বা অন্যান্য জীবাশ্ম জ্বালানি নয়, বাংলাদেশে নবায়নযোগ্য শক্তির অংশ বাড়ানোর দাবি জানান তারা।

খায়রুল/বার্তাবাজার/এম আই

Leave a Reply

Your email address will not be published.