সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২২

খাবারের লোভ দেখিয়ে নয় বছরের এক শিশুকে ধর্ষণ স্বামী আর এই কাজে সহযোগিতা করতো স্ত্রী। ঘটনাটি ঘটেছে যশোরের বাঘারপাড়ায়।

সোমবার দিবাগত রাতে এ ঘটনায় বাঘারপাড়া থানায় বাদি হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন শিশুটির বাবা। মামলা দায়েরের পর মঙ্গলবার ভোরে অভিযুক্ত ভ্যানচালক আকাশ হোসেন (২৪) ও তার স্ত্রী সীমা খাতুনকে (২১) গ্রেফতার করেছে বাঘারপাড়া থানা পুলিশ।

গত শনিবার (১৯ মার্চ) রাত ৮টার দিকে উপজেলার দরাজহাট ইউনিয়নের পুকুরিয়া গ্রামের গুচ্ছপাড়ায় এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

মামলায় ভিক্টিমের বাবা উল্লেখ করেছেন, দীর্ঘদিন ধরে খাবারের লোভ দেখিয়ে তার ৯ বছরের শিশুকে নিজ বসতঘরে ধর্ষণ করতো পুকুরিয়া গ্রামের সবুর মোল্যার ছেলে আকাশ হোসেন। আর এ কাজে আকাশকে সহযোগিতা করতো স্ত্রী সীমা খাতুন। কিন্তু শনিবার রাত ৮টার দিকে প্রতিবেশী এক চাচিকে শিশুটি ঘটনাটি জানায়।

এরপর ওই চাচি শিশুটির পরিবার ও আশপাশের লোকজনকে বিষয়টি জানালে থানা পুলিশকে খবর দেন তারা। পরে পুলিশ এসে গুচ্ছপাড়ার বাড়ি থেকে অভিযুক্ত ভ্যানচালক ও তার স্ত্রীকে গ্রেফতার করে।

বাঘারপাড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মকবুল হোসেন বলেন, শিশুটিকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে। ধর্ষক পুকুরিয়া গ্রামের সবুর মোল্যার ছেলে আকাশ হোসেন ও ধর্ষণে সহায়তাকারী তার স্ত্রী সীমা খাতুনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তিনি বলেন,মঙ্গলবার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে তাদের। আর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট যশোর জেনারেল হাসপাতালে ডাক্তারি পরীক্ষা হয়েছে শিশুটির। এছাড়া ম্যাজিস্ট্রেটের সামনে ২২ ধারায় তার জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়েছে।

বার্তাবাজার/না. সা.

Leave a Reply

Your email address will not be published.