ময়নাতদন্তের রিপোর্টে ফাঁস হলো শেন ওয়ার্নের মৃত্যুর আসল রহস্য

শেন ওয়ার্নের মৃত্যুর তিন দিন পর জানা গেলো ময়নাতদন্তের রিপোর্ট। যার ওপর ভিত্তি করে থাইল্যান্ডের পুলিশ নিশ্চিত করেছে, স্বাভাবিক কারণেই মৃত্যু হয়েছে অস্ট্রেলিয়ান কিংবদন্তির।

সোমবার (৭মার্চ) ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর ওয়ার্নের পরিবারকেও জানানো হয়েছে এ তথ্য। তারা সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন ময়নাতদন্তের রিপোর্টে।

এখন দ্রুততার সঙ্গে ওয়ার্নের মরদেহ থাইল্যান্ড থেকে অস্ট্রেলিয়ায় নেওয়ার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। থাই ডেপুটি ন্যাশনাল পুলিশের মুখপাত্র কিসানা পাথানাচরন এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘আজকে তদন্তকারীরা ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেয়েছেন। যেখানে চিকিৎসকদের মতামত হলো, মৃত্যুর কারণ ছিল স্বাভাবিক। তদন্তকারী এই রিপোর্টের সারসংক্ষেপ দাঁড় করাবেন।’

এদিকে রয়্যাল থাই পুলিশের পরামর্শক লেফট্যান্যান্ট সুরাচাত হাকপার্ন সোমবার সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছেন, এর আগেও ২০১৭ থেকে তিনবার থাইল্যান্ডের কো সামুই দ্বীপে ভ্রমণ করেছেন। গত সপ্তাহে তিন মাসের ছুটির শুরুতে চতুর্থবারের মতো থাইল্যান্ড গিয়েছিলেন ওয়ার্ন।

আনুষ্ঠানিক তদন্তের পর হাকপার্ন জানিয়েছেন, ওয়ার্নের ঘরে কোনো সন্দেহজনক কিছু পাওয়া যায়নি। এমনকি হাতাহাতি বা কোনো জিনিস চুরি যাওয়ারও আলামত পাওয়া যায়নি। সোমবার রাতে সড়কপথে ব্যাংককে নিয়ে যাওয়া হবে ওয়ার্নের মরদেহ। সেখান থেকে মঙ্গলবার নেওয়া হবে অস্ট্রেলিয়ায়।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার কো সামুই দ্বীপের একটি প্রাইভেট ভিলায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ওয়ার্ন। তার ঘরে গিয়ে তাকে অচেতন অবস্থায় পেলে প্রায় ২০ মিনিট ধরে সিপিআর দেন বন্ধুরা। পরে হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন।

বার্তাবাজার/জে আই

Leave a Reply

Your email address will not be published.