মুরাদনগরে প্রকাশ্যে বিক্রি হচ্ছে শিয়ালের মাংস

কুমিল্লার মুরাদনগরে প্রকাশ্যে শিয়াল জবাই করে বিক্রি হচ্ছে মাংস। আর এই মাংসের ক্রেতা পাওয়ার জন্য ফেসবুকে মোবাইল নাম্বার দিয়ে যোগাযোগও করতে বলেছেন এক যুবক।

জানা যায়, গত শনিবার (১০ মার্চ) উপজেলার দারোরা ইউনিয়নের কাজিয়াতল হাছান মার্কেটে শিয়াল জবাই করে পাঁচশ টাকা কেজি ধরে বিক্রি করেন স্থানীয় একদল যুবক। ক্রেতা পাওয়ার জন্য শফিকুল ইসলাম তার ফেইসবুক আইডিতে শিয়ালের মাংস কাটার ছবিসহ মোবাইল নাম্বারও দিয়েছেন। দেয়া নাম্বারে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, শিয়ালের মাংস ডিফ ফ্রিজে রাখা আছে। কাজিয়াতল হাছান মার্কেটে এসে ফোন দিলে আপনাকে সিরিভ করা হবে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, মাছ ধরার চল বা কোছ দিয়ে দূর থেকে গাই মেরে শিকার করেন শিয়াল। ব্যাত-ব্যথা কিংবা কঠিন রোগের প্রতিষেধক হিসেবে শিয়ালের মাংস রান্না করে খাওয়ার কোন বিকল্প নেই, এমন কথা বলেই তারা বিক্রি করছেন মাংস।

তবে মুরাদনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. নাজমুল আলমের কাছে এই বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, শিয়ালের মাংস রান্না করে খেলে ব্যাত-ব্যথা ভালো হবে এর কোন ভিত্তি নেই।

খোজ নিয়ে আরো জানা যায়, বর্ষা চলে যাওয়ায় ও ছোট বড় ঝোপ-ঝাড় কমে যাওয়ায় দিনের বেলায় প্রকাশ্যেই চলে আসছে শিয়াল। এই সুযোগে শিয়াল শিকার করে একদল যুবক তার মাংস বিক্রি করছেন কিছু অসাধু মাংস বিক্রিতার কাছে। তারা অন্যত্র খাসির মাংস বলে বিক্র করেন শিয়ালের মাংস।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বেশ কয়েক জন বলেন, গত দুই বছরে শিয়ালের সংখ্যা বেড়েছে অনেক। হরহামেশাই শোনা যায় শিয়ালের মাংস বিক্রের খবর। কসাই কোথায় গরু বা খাসি জবাই করছেন তার কোন তদারকি নেই সংশ্লিষ্টদের। তাই মাঝে মধ্যে আতংক নিয়েই কিনতে হচ্ছে মাংস।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অভিষেক দাশ বলেন, বন্যপ্রাণী জবাই করে মাংস বিক্র করা আইনত অপরাধ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে বেশ কয়েকটি ছবি আমরা পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে জড়িতদের বিরুদ্ধে বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইনে মামলা দেয়া হবে।

নাজিম/বার্তাবাজার/এম আই

Leave a Reply

Your email address will not be published.