মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি কর্মীর বিপুল চাহিদায় ২ লাখ আবেদন

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি কর্মীর চাহিদা বেড়েই চলেছে। নিয়োগকর্তাদের কাছ থেকে দুই লাখ আবেদন পেয়েছে দেশটির মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়। শুধুমাত্র বাংলাদেশি শ্রমিক নিয়োগ করার জন্য নিয়োগ কর্তাদের এই আবেদন অতীতের যে কোন সময়ের চেয়ে বেশি।

বৃহস্পতিবার (১০ মার্চ) এইচআরডি কর্পোরেশন ওপেন ডে চালু করার পরে একটি সংবাদ সম্মেলনে মানবসম্পদ মন্ত্রী দাতুক সেরি এম সারাভানান এ তথ্য জানিয়েছেন ।
মানবসম্পদ মন্ত্রী জানিয়েছেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখে সব সেক্টরে নিয়োগের জন্য শ্রমিকদের অনুমতি দেওয়া হবে।

সারাভানান বলেছেন, যে সমস্ত বিদেশী কর্মীদের জন্য বিশেষ প্রশিক্ষণ কোর্স বাধ্যতামূলক করা হবে যারা এখানে (মালয়েশিয়ায়) থাকাকালীন তাদের অধিকার সম্পর্কে সচেতনতা তৈরি হয়।

তবে এটা বাংলাদেশের জন্য সুখবর দিন দিন বাংলাদেশি শ্রমিকের চাহিদা দেশটিতে বেড়েই চলেছে। তবে দেশটিতে সবচেয়ে বেশি শ্রমিক রয়েছে ইন্দোনেশিয়ার। সরকার ইন্দোনেশিয়া থেকেও শ্রমিক আমদানির কথা ভাবছে যদিও এখনো এমওইউ চুক্তি স্বাক্ষর হয়নি। এদিকে বাংলাদেশের সাথে মালয়েশিয়া যাবতীয় প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলেও সিন্ডিকেট জটিলতার কারণে শ্রমিক নিয়োগ ঝুলে আছে।

এ ছাড়া “বিদেশী কর্মীদের আনার জন্য কোন এজেন্ট ব্যবহার করা হবে না, কারণ নিয়োগকর্তাদের এজেন্টদের দ্বারা অপব্যবহারের সমস্যা দূর করতে সরাসরি কর্মী নিয়োগ করতে হবে। বিদেশী কর্মীদের আনার জন্য মন্ত্রীদের আর কোনও বিশেষ অনুমোদনের প্রয়োজন হবে না এবং ই-মজুরি ব্যবস্থা কার্যকর করা হবে যেখানে বিদেশী কর্মীদের প্রতি মাসের ৭ তারিখের মধ্যে বেতন দিতে হবে।

আশরাফুল/বার্তাবাজার/এম আই

Leave a Reply

Your email address will not be published.