সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২২

নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার দাসগ্রাম ফাজিল মাদ্রাসার ৭ম শ্রেনীতে পড়ুয়া এক ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টা মামলার অভিযুক্ত অধ্যক্ষ হযরত আলী (৬০) কে লালপুর থেকে আটক করেছে র‌্যাব।

বৃহস্পতিবার (১০ মার্চ) সকালে লালপুর থানা এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। র‌্যাব জানায়, আটককৃত অধ্যক্ষ হযরত আলী গত ১৮ ফেব্রুয়ারি সকালে জেলার বড়াইগ্রাম উপজেলার তারই দাসগ্রাম ফাজিল মাদ্রাসার ৭ম শ্রেণীতে পড়ুয়া দুইজন ছাত্রীকে কাগজপত্র ঠিক করার জন্য মাদ্রাসায়
ডাকে।

ছাত্রীরা মাদ্রাসায় গেলে তাদেরকে নিজ অফিস কক্ষে ডেকে একজন ছাত্রীকে ১০০ টাকা দিয়ে দোকানে পাঠায় এবং দরজা বন্ধ করে অপর ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। ধস্তাধস্তির ফলে ভিকটিম চিৎকার করলে তিনজন ছেলে জানালা দিয়ে দেখে ফেলায় অভিযুক্ত ঐ ছাত্রীকে ছেড়ে দেন। ভিকটিম ও তার পরিবারের লোকজন সামাজিক মর্যাদা ও মান সম্মানের কথা চিন্তা করে বিষয়টি চেপে রাখলেও পরবর্তীতে বিষয়টি প্রকাশ হয়ে পড়ায় ঐ ছাত্রীর মা বাদী হয়ে অভিযুক্ত অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে বড়াইগ্রাম থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ এর (সং-০৩) এর ৯ (৪) (খ), (ধর্ষণের চেষ্টা) মামলা দায়ের করেন।

থানায় মামলা রুজু হওয়ার পর থেকে অভিযুক্ত অধ্যক্ষ হযরত আলী পলাতক ছিলেন। ১০ মার্চ গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে নাটোর র‌্যাব ক্যাম্পের কোম্পানী অধিনায়ক, অতিঃ পুলিশ সুপার মোঃ ফরহাদ হোসেন এবং কোম্পানী উপ-অধিনায়ক, মোঃ রফিকুল ইসলাম এর নেতৃত্বে লালপুর থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে অভিযুক্ত অধ্যক্ষ হযরত আলী কে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। আটককৃত অভিযুক্তকে নাটোর জেলার বড়াইগ্রাম থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

টুটুল/বার্তাবাজার/এম.এম

Leave a Reply

Your email address will not be published.