মঠবাড়িয়ায় সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীর বাল্য বিয়ে নিয়ে তোলপাড়

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় বিবিএস মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্রীর বাল্য বিবাহ নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে। জান্নাতি নামে সৌদী প্রবাসীর ১৪ বছরের কন্যার বিয়ে ঠেকাতে থানা পুলিশ ও সংশ্লিষ্ট মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা ব্যর্থ চেষ্টা করেছেন।

সৌদি প্রবাসীর স্ত্রী জানান, এ ঘটনায় আমি হয়রানি হয়েছি। বিভিন্ন অফিস ম্যানেজ করতে ৫০ হাজারেরও বেশি টাকা খরচ হয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উত্তর সোনাখালীর একটি মসজিদে আলফাজ ওরফে সাদ্দামের সাথে ইসলামী শরিয়ত মোতাবেক জান্নাতি নামে ওই স্কুল ছাত্রীর বিবাহ হয়। বাল্য বিয়ের ঝামেলা এড়াতে এরপর থেকে তারা ঢাকায় বসবাস করেন।

এদিকে সৌদি প্রবাসীর স্ত্রী তার মেয়ের বাল্য বিয়ের হয়রানির ঘটনায় একাধিক প্রতিবেশীকে দোষারোপ করে হুমকি দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। কেউ কেউ বিষয়টি থানায় অবগত করেছেন।

উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা রূপ কুমার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বিবাহ হয়েছে তবে রেজিষ্ট্রেশন হয়নি। তারপরও ছেলে মেয়ে উভয় পক্ষ এবং সংশ্লিষ্ট মৌলভীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শাহজাহান/বার্তাবাজার/এম আই

Leave a Reply

Your email address will not be published.