October 3, 2022

চুয়াডাঙ্গায় ভুট্টাক্ষেত থেকে রহিমা খাতুন (৫৫) নামে এক নারীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সদর উপজেলার কুতুবপুর গ্রামের মাঠ থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। রহিমা খাতুন ওই গ্রামের মৃত আকাল আলীর মেয়ে।

স্থানীয়রা জানান, বৃহস্পতিবার (১০ মার্চ) সকাল থেকে নিখোঁজ ছিলেন রহিমা খাতুন। পরে গভীর রাতে গ্রামবাসীর সহযোগিতায় তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

এঘটনায় পুলিশ ধারণা করছে, নিহত রহিমা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যেতে পারেন।

প্রতিবেশীদের বরাত দিয়ে কুতুবপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মালেকা খাতুন জানান, বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ির পাশের অন্য এক নারীর সঙ্গে গবাদিপশুর জন্য গ্রামের পাশের একটি মাঠে ঘাস সংগ্রহ করতে যান রহিমা খাতুন। প্রতিবেশী ওই নারী বাড়ি ফিরলেও তিনি ফেরেননি।

সন্ধ্যার পরও ফিরে না আসায় আশপাশে খোঁজাখুঁজি শুরু হয়। পরে রাত ১২টার দিকে মাঠের একটি ভুট্টাক্ষেত থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

সদর থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন জানান, স্বামীর মৃত্যুর পর বাবার বাড়ি কুতুবপুর গ্রামেই থাকতেন রহিমা খাতুন। তিনি হার্টের রোগী ছিলেন বলে শোনা যাচ্ছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি, হার্টঅ্যাটাকে মারা যেতে পারেন তিনি। লাশের সুরতহাল রিপোর্ট করেছি। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বার্তাবাজার/এম আই

Leave a Reply

Your email address will not be published.