September 28, 2022

ভারতের কর্নাটক রাজ্যের শ্রেণিকক্ষে হিজার পরার বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতের দেওয়া রায় বাতিল চেয়েছে বাংলাদেশের হেফাজতে ইসলাম।

বুধবার (১৬ মার্চ) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব সাজিদুর রহমান এ দাবি জানান। সংগঠনটির প্রচার সম্পাদক মুহিউদ্দীন রাব্বানী গণমাধ্যমে এই বিবৃতি পাঠিয়েছেন।

গত ফেব্রুয়ারিতে ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় কর্নাটক ক্লাসে হিজাব পরার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি হয়। এই নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছিল মুসলিম শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকরা এবং এর পাল্টা প্রতিবাদ করেছিল কিছু হিন্দু শিক্ষার্থী। ওই নিষেধাজ্ঞার বিরোধিতা করে শিক্ষার্থীরা উচ্চ আদালতে যান। শ্রেণিকক্ষে হিজার পরার দাবিতে পাঁচটি রিট পিটিশন দায়ের হয়।

মঙ্গলবার (১৫ মার্চ) পিটিশনগুলো খারিজ করে কর্নাটক হাইকোর্ট রায় দেন। রায়ে বলা হয়েছে, হিজাব পরা বাধ্যতামূলক কোনো ধর্মীয় অনুশীলন নয়। ভারতের আদালতের এ রায় ‘চরম মূর্খতার’ পরিচায়ক উল্লেখ করে হেফাজতের মহাসচিব বলেছেন, ‘আল্লাহর বিধানের ওপর রায় দেওয়ার এখতিয়ার ভারত কেন, বিশ্বের কোনো আদালতই রাখে না।’

এ রায় ভারতের সংবিধান পরিপন্থী দাবি করে তিনি বলেন, ‘১৯৪৮ সালে ভারতের প্রণীত সংবিধানে ধর্মনিরপেক্ষতা এবং মুসলমানসহ সকল ধর্মাবলম্বীর নিজ নিজ ধর্মীয় স্বাধীনতা সুসংরক্ষিত করা হয়েছে। তাই হিজাব নিয়ে ঘোষিত রায় মুসলিম জাতির হৃদয়ে চরম আঘাত হেনেছে।’

অবিলম্বে ইসলাম বিদ্বেষী রায় বাতিল করার জন্য ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতি জোর দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, ‘অন্যথায় বিশ্বব্যাপী মুসলমানরা প্রতিবাদ গড়ে তুলবে।’

বার্তাবাজার/জে আই

Leave a Reply

Your email address will not be published.