October 3, 2022

মাদারীপুরের রাজৈরে বাড়ি ঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে অসহায় বৃদ্ধা গোলাপি বেগমের (৬৫) জায়গা দখলের চেষ্টায় মরিয়া হয়ে উঠেছে সিদ্দিক মাতুব্বরসহ তার লোকজন। বিভিন্ন হুমকি ও নির্যাতন করায় ভয়ে নিজ বাড়িতে থাকতে পারছেন না তিনি।

এ বিষয়ে রাজৈর থানায় অভিযোগ দিলে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পুলিশ। ভুক্তভোগী বৃদ্ধা উপজেলার বদরপাশা ইউনিয়নের পূর্ব দারাদিয়া গ্রামের মৃত মজিদ মাতুব্বরের স্ত্রী।

ভুক্তভোগীর অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, পূর্ব দারাদিয়া গ্রামের সিদ্দিক মাতুব্বর (৬০), সাকিল মাতুব্বর (২২), আক্রাম মাতুব্বর (৪০), মোনু নক্তি (৫০), সেতারা বেগম (৩০), মনোরা বেগম (মনু বিবি) (৬০) ও আন্না বেগমের (৪০) সাথে ওই বৃদ্ধার বসতবাড়ির জায়গা জমিসহ পারিবারিক নানাবিধ বিরোধ চলে আসছিলো। এরই জের ধরে তিনি বাড়িতে আসলে প্রতিপক্ষরা হামলা চালিয়ে বসত ঘর, রান্না ও টয়লেট ভাংচুর করে।

এসময় তাদের বাধা দিতে গেলে ওই বৃদ্ধাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজসহ এলোপাথাড়ি ভাবে মারধর করে। পরে তার ডাক চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে আসে। একপর্যায়ে জায়গার দলিল না দিলে তাকে হত্যা করার হুমকি দিয়ে স্থান ত্যাগ করে প্রতিপক্ষের লোকজন। এ ঘটনায় নিরাপত্তা চেয়ে ওই বৃদ্ধা বাদি হয়ে রাজৈর থানায় অভিযোগ দায়ের করলে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এস.আই আশিক।

তবে অভিযুক্তরা বলছেন গোলাপি বেগমের বসতঘর তাদের জায়গায় রয়েছে। এবং ঘরের পাশ দিয়ে চলাচলের রাস্তা বেশি চাপা। তাই রাস্তা চওড়া করার জন্য তাকে নিজ দায়িত্বে ঘর ভাঙ্গতে বলা হয়েছে।

বৃদ্ধা গোলাপি বেগম জানান, তারা বলে আমার নাকি কোন জায়গা নাই। আমাকে এখানে থাকতে দেবে না। এখন তাদের অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে পার্শ্ববর্তী গ্রামে মামা শশুর বাড়ি থাকি।

এ ব্যাপারে তদন্তকারী এস.আই আশিক বলেন, ঘটনাস্থলে গিয়ে একটি টিনের ব্যাড়া ভাংগা ও বাথরুম হেলানো অবস্থায় দেখেছি। পরে স্থানীয় মেম্বারকে ঠিক করিয়ে দিতে বলেছি। তবে এটা জায়গা জমির বিষয়, আদালত দেখবে।

আকাশ/বার্তাবাজার/এ.আর

Leave a Reply

Your email address will not be published.