October 1, 2022

আট বছরের দাম্পত্য জীবনে প্রথমবারের মতো সন্তান প্রসব করেছেন কুড়িগ্রামের আদুরী বেগম আশা নামে এক গৃহবধূ। একসঙ্গে চার সন্তান এসেছে মা আশার কোলজুড়ে। তিনকন্যা ও এক পূত্রের মা হলেন তিনি।

মঙ্গলবার (২২ ই মার্চ) রাতে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের গাইনী ওয়ার্ডে সফল অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে ঐ চার নবজাতক ভূমিষ্ঠ হয়।

হাসপাতাল ও পারিবারিক সুত্রে জানাগেছে, কুড়িগ্রাম জেলা সদরের নাদিরা গ্রামের মনিরুজ্জামান বাঁধনের সাথে ৮ বছর আগে বিয়ে হয় আদুরী বেগম আশার। দীর্ঘ ৮ বছরেও মনির- আশা দম্পতির সন্তান না আশায় পরিবারে অশান্তি লেগে থাকতো। পরে গাইনী বিশেষজ্ঞ ডাক্তার ফৌজিয়া আক্তার রিয়ার তত্বাবধানে চিকিৎসা নিয়ে অবশেষে গর্ববতী হয় আশা। আলট্রাসনোগ্রাম পরীক্ষায় দেখা যায় তার গর্ভে ৪টি সন্তান রয়েছে। চিকিৎসকদের পরামর্শে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ১১ নং গাইনী ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়।পরে মঙ্গলবার রাতে রংপুর মেডিকেলেই ৪ টি সন্তান জন্ম গ্রহন করেন।

নতুন অতিথি আসায় কুড়িগ্রামের মনিরুজ্জামান বাধন-আশা দম্পতির পরিবারটিতে এখন ‘ঈদের চেয়ে’ বেশি খুশি বিরাজ করছে।

নবজাতকদের বাবা মনিরুজ্জামান বলেন, দীর্ঘ আটবছরেও সন্তান জন্ম না দেয়ার দুঃখ কষ্ট কে পিছনে ফেলে আজ কোল জুড়ে চার সন্তান জন্ম নেয়ায় আনন্দে আত্বহারা হয়েছি। সকলের কাছে দোয়া চাই সন্তান ও আমার স্ত্রীর জন্য।

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের গাইনী বিভাগের সহকারী রেজিস্ট্রার ডা. ফারহানা ইয়াসমিন ইভা জানান, মাত্র ৩২ সপ্তাহ গর্ভে থাকার পরও বাচ্চা চারটি সিজারের পর কেঁদে উঠে। ওজন কম হলেও মা ও ৪ সন্তানই সুস্থ আছেন। চার নবজাতক কেই নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

রকি/বার্তাবাজার/এম.এম

Leave a Reply

Your email address will not be published.