বাউফলে আ.লীগের জনসভা অনুষ্ঠিত

পটুয়াখালীর বাউফলে স্বাধীনতার ৫০বছর উদযাপন উপলক্ষ্যে জনসভা ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গল বার বিকাল ৩টার দিকে উপজেলার কেশবপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের আয়োজনে বাজেমহল মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে ওই জনসভা অনুষ্ঠিত হয়।

জনসভায় কেশবপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান মো. সালেহ উদ্দিন পিকুর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক চিফ হুইপ ও উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আ.স.ম ফিরোজ এমপি।

প্রধান অতিথি আ.স.ম ফিরোজ এমপি বলেন, আওয়ামী লীগ একটি বৃহত্তম রাজনৈতিক দল। দলের মধ্যে ছোট-ঘাট মতানৈক্য থাকতেই পারে। বিএনপি-জামায়াতের শাসনামলে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের উপর যে অত্যাচার নির্যাতন করা হয়েছে সে কথা মনে পড়লে এখনো শিউরে উঠতে হয়। এই বিএনপি স্বাধীনতাবিরোধীদের মন্ত্রী বানিয়ে জাতীয় পতাকা এবং জাতিকে অপমান করছে। হাজার হাজার কোটি টাকার দুর্ণিতী করেছে। খালেদা জিয়া তারেক জিয়া দুর্নীতির মামলায় অভিযুক্ত। কেউ কেউ বিদেশে পালিয়ে রয়েছে। এজন্যই দেশবাসী ওই স্বাধীনতাবিরোধীদের আর ক্ষমতায় দেখতে চায়না।

উন্নয়ন, অগ্রগতি এবং মুক্তিযুদ্ধের অবদানকে সমুন্নত রাখতে আবারো আমাদের আওয়ামী লীগকে রাস্ট্রীয় ক্ষমতায় আনতে হবে। এজন্য আমাদের ঐক্যের বিকল্প নাই। সকল মান অভিমান ভুলে তৃণমূলের মানুষের কাছে শেখ হাসিনার ছালাম পৌঁছে দিয়ে দেশের উন্নয়নের কথা জানাত হবে। মনে রাখতে হবে নির্বাচন এলেই দেশি-বিদেশি ষরযন্ত্র শুরু হয়। দলে থেকে যথার্থ সম্মান পেয়েও কেউ কেউ দলের মধ্যে অনৈক্যের সৃষ্টি করছে। তাদের শুভবুদ্ধির উদয় হোক। অন্যথায় বাউফলের বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার সৈনিকেরা তাদের ক্ষমা করবেন না।

বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদ ভাইস-চেয়ারম্যান মোসারেফ হোসন খান, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার সামসুল আলম মিয়া, মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান মরিয়ম নিশু, উপজেলা আওয়ামীলীগ সহ-সভাপতি অ্যাড. মফিজুর রহমান, উপজেলা আওয়ামীলীগ যুগ্ম সাধারন সম্পাদক আনিসুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক ও সূর্যমনি ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বাচ্চু, উপজেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক মো. ফরিদ উদ্দিন প্রমূখ।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন- উপজেলা যুবলীগ সভাপতি মো. শাহজাহান সিরাজ, সাংগঠনিক সম্পাদক খলিলুর রহমান, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সাধারন সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম সিকদার, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক সামসুল কবির নিশাত, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি নিয়াজ মোর্শেদ প্রমূখ।

জনসভা শুরুর নির্ধারিত সময়ের আগেই কেশবপুর ইউনিয়ন আআওয়ামীলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে জনসভাস্থলে জড়ো হয়। জনসভা শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

হান্নান/বার্তাবাজার/এম.এম

Leave a Reply

Your email address will not be published.