বরিশালে জুমার নামাজ পড়ার সময় ভ্যান চুরি, কান্না থামছে না চালকের

সম্প্রতি সুদের টাকায় নতুন একটি ভ্যানগাড়ি কিনেছিলেন মানিক সিকদার (৫৫)। সেই গাড়ির আয়ে চলছিল অসুস্থ মা-বাবাসহ ৬ জনের সংসার। গতকাল শুক্রবার ১ জুলাই মসজিদের সামনে ভ্যানগাড়ি রেখে জুমার নামাজ পড়তে যান মানিক। নামাজ শেষে মসজিদ থেকে বের হয়ে দেখেন তার ভ্যানগাড়িটি নেই। এ সময় কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি।

গতকাল বরিশালের উজিরপুর উপজেলার থানা মসজিদ সংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় উজিরপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন মানিক সিকদার। তিনি উজিরপুর পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা। আজ শনিবার ২ জুলাই বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পুলিশ পরিরদর্শক (তদন্ত) মমিন উদ্দিন। তিনি জানান, আমরা চেষ্টা করছি দ্রুত সময়ের মধ্যে ভ্যানগাড়িটি উদ্ধার করার।

এদিকে গাড়ি হারিয়ে গতকাল থেকে কোনোভাবেই কান্না থামছে না মানিক সিকদারের। কাজ না থাকায় গতকাল থেকে বাড়িতে বসে আছেন তিনি। এতে থমকে গেছে তার জীবন সংসার। কীভাবে সংসার চলবে, আর কীভাবে সুদের টাকা পরিশোধ করবেন এ নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন তিনি।

এ বিষয়ে মানিক সিকদার বলেন, শুক্রবার থানা মসজিদের সামনে ভ্যানগাড়ি রেখে জুমার নামাজ আদায় করতে গেছিলাম। নামাজ শেষে এসে দেখি আমার ভ্যানগাড়িটি নেই। তিনি বলেন, ৩০ হাজার টাকা সুদে নিয়ে এবং বাকি টাকা আত্মীয়-স্বজনের কাছ থেকে ধার নিয়ে মোট ৫০ হাজার টাকা খরচ হয়েছে ভ্যানটি বানাতে। সুদের টাকা এখনও পরিশোধ হয়নি। এখন কীভাবে টাকা পরিশোধ এবং সংসার চালাব বুঝতে পারছি না।

এ বিষয়ে উজিরপুর পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর বাবুল সিকদার বলেন, মানিক সিকদার আমার ওয়ার্ডের বাসিন্দা। তার সংসার চালানোর একমাত্র উপায় ছিল ভ্যানগাড়িটি। সেটি চুরি হয়ে বিপদে পড়েছেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.