বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত তিন জেলায় ১৩৫৯ মোবাইল নেটওয়ার্ক সাইট সচল

বন্যাদুর্গত সিলেট, সুনামগঞ্জ ও নেত্রকোণায় ২ হাজার ৫২৮টি মোবাইল নেটওয়ার্ক সাইট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। এ পর্যন্ত ১ হাজার ৩৫৯টি সাইট সচল করা হয়েছে। বিভিন্ন এলাকায় বিদ্যুৎ সচল হলে আরও ৪০৩টি সাইটে মোবাইল নেটওয়ার্ক সচল হবে। বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি জানিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

বিটিআরসি জানায়, সিলেট, সুনামগঞ্জ ও নেত্রকোণা জেলায় যেসব এনটিটিএন অপারেটরদের (বাহন লি., ফাইবার অ্যাট হোম লি. ও সামিট কমিউনিকেশনস লিমিটেড) উপস্থিতি রয়েছে, তাদের অধিকাংশ পপ বর্তমানে সচল অবস্থায় রয়েছে। এসব অপারেটরদের সচল পপসমূহের সংখ্যা বুধবার থেকে ক্রমান্বয়ে উল্লেখযোগ্য হারে বাড়ছে।

বন্যাকবলিত স্থানগুলোতে টেলিযোগাযোগ সেবা ব্যবস্থার সার্বিক পরিস্থিতি সার্বক্ষণিক মনিটরিংয়ের উদ্দেশ্যে গঠিত মনিটরিং সেলের প্রতিনিধি সিলেট অঞ্চলে সরেজমিনে পরিদর্শন ও সমন্বয় সাধন সংক্রান্ত বিভিন্ন কার্যক্রম নিবিড়ভাবে পরিচালনা করছেন।

সেই কার্যক্রমের অংশ হিসেবে আজ (বৃহস্পতিবার) সিলেটে সব মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটরদের অংশগ্রহণে একটি সমন্বয় সভার আয়োজন করা হয়। সভায় এ দুর্যোগকালে অপারেটরগুলো তাদের নেটওয়ার্ক সচল রাখার ক্ষেত্রে যেসব প্রতিবন্ধকতার (যেমন- কমার্শিয়াল বিদ্যুৎ সংযোগের অনুপস্থিতি, ব্যাটারি চুরি ইত্যাদি) সম্মুখীন হয়েছে, উপস্থিত মনিটরিং সেলের প্রতিনিধিকে সেসব জানিয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বিটিআরসির মনিটরিং সেলের প্রতিনিধিরা বিদ্যুৎ সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানসমূহের সঙ্গে যোগাযোগ করে দ্রুত বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন সাইটসমূহ সচল করার জন্য এবং সাইট থেকে ব্যাটারি চুরি রোধে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে সমন্বয় সাধনের মাধ্যমে সমস্যা সমাধানে কার্যক্রম গ্রহণ করবেন।

এ ছাড়াও সিলেটের দুর্যোগকবলিত অঞ্চলে অপারেটরদের প্রতিবন্ধকতাসমূহ দ্রুত জানানো এবং তা নিরসনের জন্য অপারেটরদের প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে সিলেট মনিটরিং সেল শীর্ষক একটি বিশেষ দল গঠন করা হয়েছে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

বার্তাবাজার/জে আই

Leave a Reply

Your email address will not be published.