October 3, 2022

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্টিকার ব্যাবহার করে ছদ্মবেশে ৪৯৮ বোতল ফেন্সিডিল বহনকালে একটি প্রাইভেটকারসহ তিন মাদক ব্যাবসায়ীকে আটক করেছে নাটোর র‌্যাব ক্যাম্পের সদস্যরা। মঙ্গলবার ভোর পাঁচটায় বাঘা-চারঘাট সড়কের চাঁনপুর কাকরামারী এলাকায় চেকপোষ্ট বসিয়ে তাদের আটক করা হয়।

মঙ্গলবার (১৫ মার্চ) দুপুর ১২টায় নাটোর ক্যাম্পে এক বিফ্রিংয়ে সাংবাদিকদের এই তথ্য জানানো হয়। আটককৃতরা হল, প্রাইভেটকার চালক পটুয়াখালী জেলার হাজীখালী থানার মৃত আব্দুর রহিম গাজীর ছেলে নুর আলম, রাজশাহীর চারঘাটের পিরোজপুর দক্ষিনপাড়া গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে মিনারুল ইসলাম ও একই এলাকার নুরুল ইসলামের ছেলে হাসিবুর রহমান।

রাজশাহী র‌্যাব-৫ এর অধিনায়ক মিরাজ শাহরিয়ার জানান, সুনির্দিষ্ট গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে বাঘা-চারঘাট সড়কের চানপুর কাকরামারী এলাকায় চেকপোষ্ট বসানো হয়। এ সময় বাঘা থেকে চারঘাট অভিমুখে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ভুয়া স্টিকার লাগানো সাদা রঙের একটি প্রাইভেটকার ঐ পথ দিয়ে যাচ্ছিল। চেকপোষ্ট অতিক্রমকালে তাদের থামার সংকেত দেয় র‌্যাব সদস্যরা। এসময় সিগনাল অমান্য করে প্রাইভেটকারের গতি বাড়িয়ে তারা পালানোর চেষ্টা করে। পরে ধাওয়া দিয়ে তিনজনকে আটক করে প্রাইভেটকারটি তল্লাশী করা হলে গাড়ীর ব্যাক ডালার ভিতরে দুটি প্লাস্টিকের বস্তায় রাখা ৪৯৮ পিচ ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়।

প্রাথমিকভাবে আটককৃতরা স্বীকার করেছে তারা চারঘাট থেকে এগুলো ক্রয় করে দেশের বিভিন্ন জেলায় বিক্রি করতো। সরকারী দপ্তরের বিভিন্ন ভুয়া স্টিকার ব্যাবহার করে ছদ্মবেশে বিভিন্ন জেলায় মাদক ব্যাবসা চালিয়ে আসছিল এই মাদক ব্যবসায়ীরা। এর আগেও নাটোর ক্যাম্পের র‌্যাব সদস্যদের চোখ ফাঁকি দিয়ে তারা পালাতে সক্ষম হয়েছিল। এ ঘটনায় রাজশাহীর চারঘাট থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।

সাকলাইন/বার্তাবাজার/এম আই

Leave a Reply

Your email address will not be published.