সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২২

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার জিনদপুর ইউনিয়নের নীল নগর গ্রামে ১৯ বছরের এক প্রতিবন্ধী মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠে একই গ্রামের বাসিন্দা মোহাম্মদ ইসমাঈলের (৫০) বিরুদ্ধে। শনিবার (১৯ মার্চ) রাতে এ ঘটনায় ওই মেয়ের মা বাদী হয়ে নবীনগর থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, জন্মগতভাবেই ঐ মেয়েটি শারীরিক ও বাক প্রতিবন্ধী। ওর পা দুর্বল হওয়ায় হাঁটতে ও কথা বলতে সমস্যা হয়। মেয়েটির বাবা মারা গেছেন দীর্ঘদিন হয়েছে। দরিদ্র সংসারে মা মেয়েটিকে দেখাশোনা করেন। শনিবার মেয়েটির মা অন্যান্য দিনের মতো নিজের কাজের জন্য অন্যত্র যায়, এই সুযোগে প্রতিবেশী মোহাম্মদ ইসমাঈল (লাল শাহ) বিকেলে তার বাড়িতে গিয়ে ঘরে একা থাকা মেয়েটিকে ধর্ষণ করেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় দুই ব্যক্তি বলেন, প্রতিবন্ধী ওই মেয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে তারা শুনেছেন।

অন্য আরেকটি সূত্রে জানা গেছে, বেশ কয়েকদিন ধরেই মোহাম্মদ ইসমাইল মিয়াকে প্রতিবন্ধী ওই মেয়েটির বাড়ির পাশে গরুর ঘাস তুলতে এসে ঘুর ঘুর করতে দেখা গেছে।

এই বিষয়ে খোঁজ নিতে ওই প্রতিবন্ধী মেয়েটির সঙ্গে কথা বললে সে বিভিন্ন অঙ্গ ভঙ্গি করে ধর্ষণের বা শ্লীলতাহানি হওয়ার মতো কিছু একটা হয়েছে বলে বুঝানোর চেষ্টা করেন। এ ঘটনা জানাজানি হলে এলাকায় নিন্দার ঝড় উঠে।

নবীনগর থানার জিনদপুর ইউনিয়নের বিট অফিসার এস আই মনির হোসেন জানান, ঘটনার খবর পেয়ে আমরা দ্রুত আসামিকে গ্রেপ্তার করেছি। মেয়ের মা বাদী হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছে। বিজ্ঞ আদালতে তাকে প্রেরণ করা হবে।

আক্তারুজ্জামান/বার্তাবাজার/এম.এম

Leave a Reply

Your email address will not be published.