পাল্টা মামলা দিতে মাথা কেটে হাসপাতালে ভর্তি, এলাকায় উত্তেজনা

মাদারীপুরের রাজৈরে হামলার শিকার ভুক্তভোগীরা মামলা করায় তাদের বিরুদ্ধে পাল্টা মামলা দিতে সাকিব হাওলাদারকে(১৮) ব্লেড দিয়ে মাথা কেটে হাসপাতালে ভর্তি করার অভিযোগ উঠেছে। এনিয়ে শুক্রবার (২০ মে) দুপুরে উপজেলার ইশিবপুর ইউনিয়নের শাখারপাড় গ্রামে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ হয়। এসময় কেউ গুরুতর আহত হয়নি। তবে এরআগে হামলা চালিয়ে ৩ জনকে পিটিয়ে জখম করে প্রতিপক্ষ সাবেক ইউপি সদস্য কামাল হাওলাদারের লোকজন। তাদের রাজৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কয়েকমাস আগে ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ইশিবপুর ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের বর্তমান মেম্বার নাহিদ ইমরান (নাসির) ভূঁইয়ার সমর্থক ও সাবেক মেম্বার কামাল হাওলাদারের সমর্থকদের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়। এরই জের ধরে ১৩ মে সন্ধ্যায় বর্তমান মেম্বারের সমর্থক মৃত ইসহাক মাতুব্বরের ছেলে সাকিব মাতুব্বরের(১৮) সাথে সাবেক মেম্বারের সমর্থক আতিয়ার হাওলাদারের ছেলে সাকিব হাওলাদারের(১৮) কথা কাটাকাটি হয়। পরে সাকিব হাওলাদার ও আসাদ হাওলাদারসহ ১০/১৫ জন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে আতর্কিত হামলা চালায়। এবং জাকির ভূঁইয়া (৫৮), ইকবাল ভূঁইয়া (৪৫), হৃদয় ভূঁইয়াকে (২৪) পিটিয়ে গুরুতর জখম করে। এ ঘটনায় রাজৈর থানায় একটি মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। পরেরদিন ১৪ মে সকালে সাকিব হাওলাদার ও তার মা রাহিতন বেগম(৫০) রাতে রাজৈর হাসপাতালে ভর্তি হয়ে ভুক্তভোগীদের বিরুদ্ধে থানায় পাল্টা অভিযোগ দেয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে শুক্রবার দুপুরে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।

এ ব্যাপারে রাজৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডা. সোয়েব হোসেন জানান, সাকিব হাওলাদারকে মাথা কাটা অবস্থায় ভর্তি করা হয়েছে। তবে সত্যটা পুলিশ তদন্ত করে দেখবে।

রাজৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলমগীর হোসেন জানান, দুইটি অভিযোগ পেয়েছি। এখনো কোনটির মামলা নেওয়া হয়নি।

আকাশ আহম্মেদ সোহেল/বার্তাবাজার/জে আই

Leave a Reply

Your email address will not be published.