নাতির বাইকের ধাক্কায় প্রাণ গেলো দাদির

নাতির মোটরসাইকেলের ধাক্কায় প্রাণ গেলো ৬০ বছর বয়সী দাদির। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো দুই জন। গুরুতর আহত নাতিকে ময়মনসিহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। শনিবার কিশোরগঞ্জের তাড়াইলে এ ঘটনাটি ঘটেছে।

নিহত আহত দাদি উপজেলার রাউতি ইউনিয়নের পুরুড়া গ্রামের ইসলাম উদ্দিনের স্ত্রী সখিনা আক্তার। আর আহতরা হলেন- একই এলাকার মোস্তফার ছেলে হোসাইন (২২) এবং আরোহী বন্ধু বনাটি গ্রামের বারেকের ছেলে কাওসার।

জানা যায়, শনিবার বেলা ২টার দিকে উপজেলার রাউতি ইউনিয়নের পুরুড়া গ্রামের নিজ বাড়ীর আঙ্গিনায় গৃহস্থালির কাজ করা অবস্থায় নাতির বাইক ধাক্কা দেয়। এসময় চিৎকার শুনে আশেপাশের লোকজন সখিনা সহ বাইক চালক ও আরোহী নাতিদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সখিনা আক্তারকে মৃত ঘোষণা করেন।

আহত হোসাইন এবং কাওসারকে প্রাথমিক চিকিৎসার পর উন্নত চিকিৎসার জন্য কিশোরগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। তবে, কাওসারকে কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা শেষে ছেড়ে দেয়া হলেও হোসাইন এর অবস্থা গুরুতর হওয়ায় ময়মনসিহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

নিহত সখিনার পরিবার জানায়, বাইক চালক হোসাইন সম্পর্কে নিহত সখিনার চাচাতো ভাইয়ের দিকের নাতী। এ ব্যাপারে সখিনার পরিবারের সম্মতিতে ময়না তদন্ত ছাড়াই লাশ হস্তান্তর করা হয়।

বার্তাবাজার/না. সা.

Leave a Reply

Your email address will not be published.