ধেয়ে আসছে ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি’

চট্টগ্রাম-কক্সবাজার উপকূলে আঘাত হানতে পারে ঘূর্ণিঝড় ‘অশনি’। দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপের কারণে এ ঘূর্ণিঝড় সৃষ্টি হতে পারে বলে জানিয়েছে ভারতের আবহাওয়া অফিস। ঘূর্ণিঝড়টি বর্তমানে দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরের মধ্যভাগে অবস্থান করছে। নিম্নচাপ তৈরি হয়ে তা আস্তে আস্তে ঘনীভূত হয়ে ২১ মার্চ (সোমবার) ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে। তবে, বাংলাদেশের আবহাওয়া অফিস ঘূর্ণিঝড়ের কোনো বার্তা দেয়নি।

ভারতের আবহাওয়া অফিস বলছে, লঘুচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিলে শ্রীলঙ্কার প্রস্তাবিত ‘অশনি’ নাম হতে পারে ঘূর্ণিঝড়টির। যার অর্থ হচ্ছে ‘বাজ বা বজ্র’।

তারা জানায়, মঙ্গলবার (১৫ মার্চ) দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরের মধ্যভাগে অবস্থান করছে ভারত সাগর ও তৎসংলগ্ন দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপটি। ধীরে ধীরে এটি পূর্ব ও উত্তর-পূর্বদিকে এগিয়ে ১৯ মার্চ সকালে গভীর লঘুচাপে পরিণত হতে পারে দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন আন্দামান সাগরে। এরপর ২০ মার্চ আনন্দাম নিকোবর দ্বীপের কাছাকাছি এসে এটি নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে। আর ২১ মার্চ সকালে এটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে।

২২ মার্চ উত্তর ও উত্তর-পশ্চিম দিকে এগিয়ে যেতে পারে ঘূর্ণিঝড়টি। আর ২৩ মার্চ এটি আরও উত্তর ও পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে বাংলাদেশ ও মিয়ানমার উপকূলে যেতে পারে। গত কয়েক বছর ধরে যত সামুদ্রিক ঝড় এসেছে- তার সবগুলোই প্রায় দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে আঘাত হেনেছে।

বর্তমানে লঘুচাপটির কেন্দ্রস্থলে বাতাসের সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৫০ কিমি পর্যন্ত উঠছে। এটি বেড়ে ২৩ মার্চ ৮০ কিমি পর্যন্ত উঠে যেতে পারে। এ ক্ষেত্রে ১৭ মার্চ থেকে সাগর উত্তাল হয়ে উঠবে। আর ২৩ মার্চ সেটি বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠার আশঙ্কা রয়েছে। সূত্র : আনন্দবাজার

নাজিম/বার্তাবাজার/না. সা.

Leave a Reply

Your email address will not be published.