October 2, 2022

নেত্রকোনার দুর্গাপুরে পৈতৃক সম্পওিতে দখল, উচ্ছেদ মারধর ও অতর্কিত হামলার ঘটনায় জড়িতদের আইনের আওতায় আনার দাবীতে সংবাদ সম্মেলন করেছে ভুক্তভোগীর পরিবার।

শুক্রবার (২৫ মার্চ) সকালে দুগার্পুর সাংবাদিক সমিতির মিলনায়তনে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ওই ঘটনায় গত ২১মার্চ পৌর শহরের দেশওয়ালী পাড়া এলাকার মানিক ৮ মিয়া, দুলাল মিয়া ও চকলেংগুরা এলাকার আহাম্মদ আলী, বাদল মিয়া সহ আরো ৬ জনকে অভিযুক্ত করে দুগার্পুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছে ফরহাদ মৃধা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ফরহাদ মৃধা বলেন, অভিযুক্তদের সাথে আমাদের দীর্ঘদিন যাবত জমি জমা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিলো। এই বিষয় নিয়ে আমরা দুর্গাপুর সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে মামলা দায়ের করি যার নং ৭০/২০২২৷

পরে বিজ্ঞ আদালত অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার আদেশ প্রদান করে। কিন্ত অভিযুক্তরা আমাদের ভিটা মাটি ছাড়ার জন্য নানা সময় প্রাননাশের হুমকি দিয়ে যাচ্ছিলো৷ এরই জেরে গত সোমবার (২১ মার্চ) দুপুরে মানিক মিয়ার নেতৃত্বে ৮/১০ জন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে পৌর শহরের চকলেংগুরা এলাকায় আমাদের বসতবাড়িতে প্রবেশ করে অশ্লীল ভাষায় গালমন্দ করতে থাকে।

আমার ছোট ভাই আলমগীর মৃধা ঘর থেকে বের হয়ে এর প্রতিবাদ করলে মানিক মিয়া তার হাতে থাকা রামদা দিয়ে আমার ভাইয়ের মাথায় কুপ দেয়৷ তার ডাক চিৎকারে পরিবারের সবাই বের হলে তাদেরকে আহত করে অভিযুক্তরা৷ এই সুযোগে তারা আমার ঘরে ঢুকে ট্রাংকে রক্ষিত দুই লক্ষ পঞ্চান্ন হাজার টাকা নিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা এসে আমাদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। অভিযুক্তদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবী জানান ভুক্তভোগীর পরিবার।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আলমগীর মৃধা, জলিল মৃধা, হেলেনা খাতুন মুর্শিদা খাতুন।

রাজেশ গৌড়/বার্তাবাজার/এম আই

Leave a Reply

Your email address will not be published.