টিভি দেখা নিয়ে ছেলের সাথে তর্ক, যে কাণ্ড করলো বাবা!

টেলিভিশন দেখা নিয়ে ছেলের সাথে তর্কের পর গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন আবদুল খালেক নামে এক ব্যবসায়ী। ঘটনাটি ঘটেছে বরগুনার বেতাগী উপজেলায়।

বুধবার রাতে ৩টার দিকে উপজেলার হোসনাবাদ ইউনিয়নের খানেরহাট বাজারের পাশে হাওলাদারবাড়িতে ঘটনাটি ঘটে। নিহত আবদুল খালেক একই এলাকার মৃত আবদুল হাকিমের ছেলে। তিনি পেশায় মুদি ব্যবসায়ী ছিলেন।

জানা যায়, ব্যবসায়ী আবদুল খালেক যথেষ্ট সৎ ও ধার্মিক ব্যক্তি ছিলেন। দুই ছেলে ও দুই মেয়ে নিয়ে আবদুল খালেক এবং স্ত্রী কোহিনূর দম্পতি দোকানের কাছেই বসবাস করতেন। বিয়ের পর থেকেই শ্বশুরবাড়িতে থাকতেন আবদুল খালেক। দুই মেয়ের বিয়ে হয়েছে। তারা থাকতেন শ্বশুরবাড়ি। দুই ছেলেকে নিয়েই চলছিল পরিবার। তবে নিজে ধার্মিক হওয়ায় বারবার ছেলেদের বাসায় টিভি চালাতে নিষেধ করতেন। কিন্তু বুধবার বিকালে দুই ছেলে সাইদুল ও পারভেজের সঙ্গে টিভি দেখা নিয়ে তর্ক হয় আবদুল খালেকের।

স্বজনরা জানান, তর্ক করেই বিকাল ৫টার দিকে বাসা থেকে বের হন আবদুল খালেক। সন্ধ্যায় খোঁজ নিয়ে দেখেন তিনি দোকান খোলেননি। পরে স্বজনরা খুঁজতে থাকেন। একপর্যায় রাত হয়ে গেলে বাড়ির লোকজন এবং এলাকাবাসীও খুঁজতে থাকেন খালেককে। পরে রাত দেড়টার দিকে ওই এলাকার একটি গাছের সঙ্গে আবদুল খালেকের লাশ ঝুলতে দেখা যায়।

পরে বেতাগী থানায় জানানো হলে রাত ৩টায় বেতাগী থানার পুলিশ ব্যবসায়ী আবদুল খালেকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেন।

বেতাগী থানার পরিদর্শক তদন্ত আবদুস সালাম বলেন, খবর পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হবে।

বেতাগী থানার ওসি মো.শাহ আলম বলেন, এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। মৃত্যুর কারণ জানতে তদন্ত চলছে।

বার্তাবাজার/না. সা.

Leave a Reply

Your email address will not be published.