ঝিনাইদহে সিঁদুর খেলায় মেতেছিল সনাতন ধর্মাবলম্বী নারীরা

ঝিনাইদহের চোখ-
সিঁদুর খেলায় মেতেছিল ঝিনাইদহের নারীরা। দেবী দুর্গার বিদায়ের আগে শুক্রবার সকালে শহরের বারোয়ারি পূজা মন্দির, চাকলাপাড়া পূজা মন্দির, কালীতলা পূজা মন্দিরসহ বিভিন্ন স্থানের মন্ডপে মন্ডপে চলে সিঁদুর কোটা যাত্রা। সকালে পূজার্চনার পর দেয়া হয় পুষ্পাঞ্জলি।

এরপরই হিন্দু বিবাহিত নারীরা দেবীর পায়ে লাল টকটকে সিঁদুর নিবেদন করেন। পরে সেই সিঁদুর একে অপরকে লাগিয়ে আগামী দিনের জন্য শুভ কামনা করেন। সেই সাথে স্বামী সন্তানের মঙ্গল কামনা করেন।
শহরের বারোয়ারি পূজা মন্দিরে আসা পিয়াংকা নামের এক ভক্ত জানান, দুর্গাদেবীর পায়ে সিঁদুর দেওয়ার আমরা সেই সিঁদুর সারাবছর ব্যবহার করি। সিঁদুর কোটা যাত্রার মাধ্যমে স্বামী ও সন্ত্রানের দীর্ঘায়ু কামনা করি। তারা যেনো ভালো থাকেন এই কামনা করি আমরা।

মুক্ত নামের এক ভক্ত বলেন, দেবী দুর্গার আজ বিদায়ের দিন। প্রতিবছর মা দুর্গা আসে অশুররূপী অপশক্তিকে বধ করতে। আমরা এবার কামনা করি দেবী দেশ তথা বিশ্ববাসীকে করোনামুক্ত করবে। সারা পৃথিবী থেকে করোনা দুর হবে এই কামনা করি।

The post ঝিনাইদহে সিঁদুর খেলায় মেতেছিল সনাতন ধর্মাবলম্বী নারীরা appeared first on Jhenidaherchokh.

Leave a Reply

Your email address will not be published.