ঝিকরগাছায় আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে যাওয়ায় ইউপি সদস্য মাহবুবুরের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ

ঝিকরগাছা প্রতিনিধি :

আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়ায় যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার ৩নং শিমুলিয়া ইউনিয়নের ইউপি সদস্য মাহবুবুর রহমান ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে শুক্রবার দুপুর টার সময় থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন শহিদুল ইসলাম পল্লব নামের যুবক। তিনি শিমুলিয়া ইউনিয়নের উত্তর রাজাপুর গ্রামে সোহরাব হোসেন ছেলে।
সে তার লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করেছেন, উপজেলার ৩নং শিমুলিয়া ইউনিয়নের উত্তর রাজাপুর গ্রামে ১৭নং উত্তর রাজাপুর মৌজায় ১/১নং খতিয়ানে ১০১৭নং এসএ দাগে ১৮.২৫ একর জমির মধ্যে ৭.৮০একর জমি বিজ্ঞ আদালত কর্তৃক আমাদের রায় ডিক্রী প্রাপ্ত ব্যক্তি মালিকানা থাকার পারও ৩নং শিমুলিয়া ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মাহবুবুর রহমান (মেম্বর) ও তার সহযোগীরা ক্রমাগতই আমার ও আমার পরিবারের উপর শারিরিক-মানুষিক নির্যাতন ও মানহানিকর কার্যক্রম পরিচালনা করেও তিনি ক্ষান্ত হননি। বিভিন্ন সময়ে আমাদের দখলীয় জমির মধ্যে থাকা পুকুরে প্রায় ১০লাখ টাকার মাছ, পুকুরের পাড় ভাঙ্গা ও পাটা সরিয়ে বড় ধরণের ক্ষতি সাধন করেছে। বিজ্ঞ আদালত থেকে চুড়ান্ত রায় ডিক্রী পাই কিন্তু সেটা তাহারা মানতে নারাজ। এছাড়াও বিজ্ঞ আদালত নিষেধাজ্ঞা মামলা চলমান থাকলেও তারা বিজ্ঞ আদালতকে অবমাননা করে নিজেদের ক্ষমতা প্রতিষ্ঠা করে প্রকাশ্যে ও অপ্রকাশ্যে আমার পরিবারের উপর বিভিন্ন ধরণের হুমকি-ধামকি দিচ্ছে এবং ক্ষতি করার পরিকল্পনা করছে। সম্প্রতি ২৫ ফেব্রুয়ারী সকাল অনুমানিক সাড়ে ৬টার সময় আবারও আমাদের পুকুর হতে মাছ ধরেছে।
থানার অফিসার ইনচার্জ সুমন ভক্ত জানান, পল্লব নামের এক যুবক পারিবারিক সমস্যা নিয়ে ইউপি সদস্যকে বিবাদী করে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগের উপর তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
উল্লেখ্য, কিছুদিন পূর্বে শহিদুল ইসলাম পল্লব নামের এই যুবক স্থানীয় ভাবে সঠিক বিচার না পেয়ে সঠিক বিচারের আশায় প্রশাসনের সহযোগিতা চেয়ে যশোরের বিজ্ঞ আদলতের সামনে, জেলা প্রশাসকের সামনে ও এডিসি সামনে ‘আদালতের রায় ডিক্রী না মানায় এবং আমার পরিবারের উপর অমানবিক নির্যাতন থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার জন্য প্রশাসনের সাহায্য ও সহযোগিতা চাই’ শিরোনামে হাতে একটি ডিজিটাল প্যানায় নিয়ে দ্বারে দ্বারে ঘুরতে দেখা যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.