October 3, 2022

নাটোর প্রতিনিধিঃ

নাটোরের বড়াইগ্রামে নিজছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে হযরত আলী (৫৭) নামে এক মাদরাসার অধ্যক্ষকে গ্রেফতার করা হয়েছে। হযরত আলী উপজেলা দাশগ্রাম ফাযিল মাদরাসার অধ্যক্ষ এবং ওই গ্রামের মৃত মারফত আলীর ছেলে। বৃহস্পতিবার তাকে নাটোর জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

গতকাল বুধবার রাতে লালপুর এলাকা থেকে অভিযান চালিয়ে র‌্যাব তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরআগে গত সোমবার ওই ছাত্রীর মা থানায় অধ্যক্ষ হযরত আলীর নামে মামলা দায়ের করেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ১৮ ফেব্রুয়ারি সকালে অধ্যক্ষ হযরত আলী মোবাইল ফোনে সপ্তম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে কাগজপত্রে ভুল আছে বলে তা সংশোধন করতে হবে বলে ডেকে পাঠায়। এসময় ওই ছাত্রী তার অপর এক সহপাঠীকে সাথে নিয়ে মাদরাসায় যায়। তখন অধ্যক্ষ ওই ছাত্রীর সঙ্গের ছাত্রীকে ১০০ টাকা দিয়ে দোকান থেকে বিস্কিট-চানাচুর কিনে আনতে বলে। এ সুযোগে অধ্যক্ষ ওই ছাত্রীকে জাপটে ধরে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেন। এ ঘটনা কয়েকজন প্রতিবেশী জানালা দিয়ে দেখে ফেলেন। পরে অধ্যক্ষ ছাত্রীকে ছেড়ে দিয়ে বাড়ি পাঠিয়ে দেন। তিনি এ ঘটনা কাউকে জানাতে বারণ করেন। জানালে তার লেখাপড়া বন্ধ করে দেবেন বলে হুমকি দেন। পরে ওই ছাত্রী আর মাদরাসায় আসতে রাজি হয় না। তখন তার মা মাদ্রায় যেতে না চাওয়ার কারন জানতে চাইলে খুলে বলে। পরে তিনি বিষয়টি নিয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

বড়াইগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ আবু সিদ্দিক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন তিনি বলেন, থানায় মামলার পরে অধ্যক্ষ হযরত আলী আত্মগোপনে চলে যান। পরে পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব অভিযানে নামে। অবশেষে বুধবার রাতে র‌্যাবের হাতে তিনি গ্রেফতার হন। বৃহস্পতিবার তাকে নাটোর জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.