October 5, 2022

দীর্ঘ প্রায় এগারো বছর পর আগামী ৭ ফেব্রুয়ারী চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলা তিতুদহ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।দিন যতই এগিয়ে আসছে তোতই নির্বাচনকে ঘিরে প্রার্থীদের প্রচার- প্রচারণায় মুখরিত হয়ে উঠছে তিতুদহ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন। ২ নং ওযার্ডবাসী মাঝে বিরাজ করছে নির্বাচনী আমেজ।
গিরীশনগর,আড়িয়া চক,৬২ ও ৬৩ নং আড়িয়া নিয়ে ২ নং ওয়ার্ড গঠিত। এখানে মোট ভোটার সংখ্যা ২৬৫১ জন।
যেখানে গিরীশনগর গ্রামে ভোটার সংখ্যা ৭৮৬ জন, আড়িয়া চকে ভোটার সংখ্যা ৩২৩জন এবং ৬৩ নং আড়িয়ায় ভোটার সংখ্যা ৩০১জন ও ৬২ নং আড়িয়ায় ভোটার সংখ্যা ১ হাজার ২৪১ জন। এই ভোটাররা ভোট দেবে গিরীশনগর সরকারী প্রাথমিকবিদ্যালয় ও ৬২ নং আড়িয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র।যেখানে গিরীশনগর গ্রাম থেকে ৭৮৬ জন ভোটের বিপরীতে প্রার্থী হয়েছেন মোঃ শাহা আলম ও জাহাঙ্গীর আলম। ৬২ নং আড়িয়া গ্রাম থেকে ১ হাজার ২৪১ জন ভোটের বিপরীতে প্রার্থী হয়েছেন মোঃ আমিরুল ইসলাম,সুবারেক আলী, আবু বক্কর। এখানে প্রত্যেক প্রার্থী সাথে কথা বলে জানতে পেরেছি জয়ের ব্যাপারে সকলেই শতভাগ আশাবাদী।
তিতুদহ ইউনিয়ন ২ নং ওয়ার্ড ঘুরে দেখা গেছে,
এই ওয়ার্ডে মোট ৫ জন মেম্বার প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করছে।প্রচন্ড শীত অপেক্ষা করে বিরামহীন ছুটে চলেছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। নিজেদের কর্মী পাঠিয়ে বাড়ি বাড়ি লিফলেট বিতরণ করে ভোট চাচ্ছেন। প্রার্থীরাও নিজেদের সমর্থকদের সাথে নিয়ে প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন।
প্রতিটি গ্রামেরর অলিগলি, দোকানের সামনে, ফাঁকা জায়গায় প্রার্থীদের পোষ্টারে পোষ্টারে ছেয়ে গেছে। চায়ের স্টল, হোটেলসহ সব জায়গাতেই এখন চলছে প্রার্থীদের নিয়ে আলোচনা আর জল্পনা-কল্পনা। কে হচ্ছে মেম্বার। ভোটারদের বিভিন্ন উন্নয়নের প্রতিশ্রুতিও দিচ্ছে প্রার্থীরা। ভোটের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে, ততই বাড়ছে নির্বাচনী আমেজ। ২ নং ওয়ার্ডে মোট ৫ জন মেম্বার প্রার্থী প্রতিদ্বন্দিতা করছেন। এদের মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয়তায় এগিয়ে রয়েছে মেম্বার প্রার্থী মোঃ আমিরুল ইসলাম( তালা মার্কা) । জনসেবামুলক কাজ কারনে সাধারণ মানুষের কাছে আমিরুল ইসলাম অত্যন্ত আস্থাভাজন ব্যক্তি হিসেবে ব্যাপক সুপরিচিত লাভ করেছেন।
৬২ নং আড়িয়া ভোটার আব্দুল রশিদ বলেন, ২ নং ওয়ার্ডে রাস্তা ঘাটের বেহাল দশা,দেশের সবর্ত্র ব্যাপক উন্নয়ন হলেও এই ওয়ার্ডটি রয়েগেছে অবহেলিত।এলাকার উন্নয়নের জন্য তার মতো একজন জনপ্রতিনিধি চাই গ্রামবাসী।এই গ্রামে জন্মলগ্ন থেকে কোন প্রার্থী আজো পর্যন্ত মেম্বার নির্বাচিত হতে পারিনি।সেজন্য গ্রামবাসী একত্রে আমিরুল ইসলাম তালা মার্কায় ভোট দিয়ে বিজয়ের মালা তার গলায় পরাতে চাই।
মেম্বার প্রার্থী মোঃ আমিরুল ইসলাম বলেন- আমাকে যদি জনগন ভালোবেসে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করে তাহলে আমি নির্বাচিত হয়ে প্রথমে অবহেলিত ২ নং ওয়ার্ডকে একটি রোল মডেল ওয়ার্ড হিসেবে রুপান্তর করবো ইনশাল্লাহ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.