October 6, 2022

বসত ঘরের পিছনে কৌশলে রোপন করেছিলেন গাঁজার গাছ। গাছটি বেড়ে উঠছিল। কয়েকদিন পরই কাটা হতো গাছটি। কিন্তু তার আগেই খবর পেয়ে পুলিশ গাছটি তুলে নিয়ে আসে। এঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করার পর ওই এক ব্যক্তিকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

ঘটনাটি কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার চাদপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ মনোহারপুর গ্রামের নওগাঁ পাড়ায় ঘটেছে। ওই গ্রামের বদর উদ্দিনের ছেলে মো. উজ্জল হোসেন (৪৩) কে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

থানা পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, বসতঘরের পিছনে কৌশলে গাঁজার চাষ করছিলেন রাজমিস্ত্রি উজ্জল হোসেন। এমন সংবাদের ভিত্তিতে গত সোমবার রাত সাড়ে ১১ টার দিকে তাঁর ঘরের পিছছনে অভিযান চালায় পুলিশ। অভিযানে প্রায় ১০ ফিট উচ্চতার একটি গাঁজার গাছ জব্দ করে পুলিশ। গাছটির ওজন প্রায় ২৫ কেজি।

আরো জানা গেছে, মঙ্গলবার (২১ জুন) সকালে তাঁর বিরুদ্ধে থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করা হয়। মামলা নম্বর ২৯। দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাঁকে কারাগারে পাঠায় পুলিশ।

এদিকে কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে মাদক মামলায় মানিক হোসেন (৩৬) নামের এক সিএনজি চালককে ফেনসিডিলসহ আটক করে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়। তিনি উপজেলার নন্দনালপুর ইউনিয়নের আলাউদ্দিন নগর এলাকার মো. নজরুল ইসলামের ছেলে।

পুলিশ সুত্রে জানা গেছে, গত সোমবার রাতে কুমারখালীর আলাউদ্দিন নগর বাজার এলাকায় অভিযান চালায় পুলিশ। অভিযানে লাল সুপার মার্কেটের মধ্য থেকে ২০ বোতল ফেন্সিডিলসহ মানিক হোসেনকে আটক করে পুলিশ। পরে তাঁর বিরুদ্ধে থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করা হয়। মামলা নম্বর ২৮। উক্ত মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আসামীকে মঙ্গলবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

কুমারখালী থানার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, ‘ ঘরের পিছনে কৌশলে গাঁজার চাষ করা হচ্ছিল। খবর পেয়ে ১০ ফিট উচ্চতার প্রায় ২৫ কেজি ওজনের গাঁজার গাছটি জব্দ করা হয়। অন্যদিকে ফেনসিডিলসহ এক সিএনজি চালককে আটক করা হয়, পরে ওই চাষি ও সিএনজি চালককের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করা হয়। উক্ত মামলায় তাদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

মোশারফ/বার্তাবাজার/এ.আর

Leave a Reply

Your email address will not be published.