কোম্পানীগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে হোল্ডিং ট্যাক্সের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় এক ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ এনে জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত শাস্তি দাবী করেছেন ইউপির ৮ সদস্য ও সংরক্ষিত সদস্য। উপজেলার ৪ নং ইছাকলস ইউনিয়ন পরিষদের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান সাজ্জাদু রহমান সাজুরবিরুদ্ধে হোল্ডিং ট্যাক্সের টাকা আত্মসাৎ করেছেন এমন অভিযোগের আঙ্গুল তুলেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে হোল্ডিং ট্যাক্সের নাম করে রশিদ দিয়ে স্থানীয় বাসিন্দাদের কাছ থেকে নামসর্বস্ব একটি প্রতিষ্ঠান টাকা আদায় করছে ।

অভিযোগে উল্লেখ্য ট্যাক্স আদায়ের সময় সেই প্রতিষ্ঠান কিংবা ইউপি চেয়ারম্যান কোনো নিয়মনীতির তোয়াক্কা করেনি। সেই প্রতিষ্ঠানটি ইউনিয়নের প্রত্যেক খানা প্রধানের বিপরীতে টেক্স আদায় পাশবহি বাবদ ৩০ টাকা করে প্রায় ৬ লক্ষ টাকা উত্তোলন করেন। আর ইউপি চেয়ারম্যান পরিষদের একাউন্টে জমা না দিয়ে নিজেই আত্মসাৎ করেছেন। টেক্স আদায় বাবদ উত্তোলিত টাকা ইউপির নিজস্ব জমা দেওয়ার জন্যে অভিযোগকারী ওয়ার্ড সদস্য/সদস্যারা চেয়ারম্যানকে বারবার চাপ দিলে সে গড়িমসি করছে বলে জানান।

প্রাথমিক অনুসন্ধানে স্থানীয়দের কাছ থেকে হোল্ডিং টেক্স আদায়ের প্রমাণ মিলেছে। টাকা আদায়ের একাধিক রশিদবহির কপি প্রতিবেদকের কাছে সংরক্ষিত আছে।

এ ব্যাপারে ২ নং ওয়ার্ড সদস্য শাইস্তা মিয়া বলেন, সমন্বয় সভায় হোল্ডিং টেক্স আদায়ের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে ঠিক কিন্ত চেয়ারম্যান সাহেব আমাদের ট্যাক্স আদায় সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন প্রস্তাব উড়িয়ে দেন। ওনি একক সিদ্ধান্তে টেক্স উত্তোলন করেছে।

অর্থ আত্মসাতের বিষয়ে মুঠোফোনে জানতে চাইল ইউপি চেয়ারম্যান সাজ্জাদুর রহমান সাজু জানান, হোল্ডিং টেক্স আদায়ের বিষয়টি আমি জানিনা। এই সব কিছু পরিষদের সচীবে জানেন। শুনেছি যারা টেক্স তুলেছিল তারা নাকি পালিয়ে গেছে। অভিযোগকারীরা আমার প্রতিদ্বন্ধি চেয়ারম্যান প্রার্থী এখলাছুর রহমানের পক্ষের লোক। তাই তারা আমার মান সম্মান নষ্ট করার চেষ্টা করছেন।

এ ব্যাপারে ইউপি সচীব সাহাব উদ্দিনের ব্যাবহৃত ব্যক্তিগত ফোন নাম্বারে বার বার কল দিলেও তিনি ফোন রিসিভ করেনি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লুসিকান্ত হাজং বলেন, অভিযোগ পেয়েছি তা তদন্ত করে দেখবো। যদি কেউ জড়িত থাকে তবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নিবো।

তারিকুল/বার্তাবাজার/এম আই

Leave a Reply

Your email address will not be published.