কানাডায় বিক্ষোভ ঠেকাতে জরুরি ক্ষমতা প্রয়োগ

শান্তিপূর্ণ সময়ে কানাডার ইতিহাসে জরুরি ক্ষমতা প্রয়োগের ঘটনা বিরল। ট্রাক চালকদের নেতৃত্বে চলমান বিক্ষোভ দমনে সোমবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) জরুরি ক্ষমতা প্রয়োগ করেছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। রাইফেল, হ্যান্ডগান ও বেশকিছু গোলাবারুদসহ ১১ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

এক সংবাদ সম্মেলনে ট্রুডো বলেন, আমরা অবৈধ ও বিপদজনক কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাওয়ার সুযোগ দিতে পারি না। অবরোধ ও দখলদারিত্ব অবসানে প্রাদেশিক ও আঞ্চলিক সক্ষমতা জোরদারে ফেডারেল সরকার জরুরি ক্ষমতা আইন প্রয়োগ করেছে।

তিনি বলেন, এ সময়ে সেনা মোতায়েন করা হবে না। কিন্তু অবরোধের অবসান,বিক্ষোভকারীদের অর্থায়ন নিষিদ্ধ এবং তদের গ্রেফতারে কর্তৃপক্ষ আরও ক্ষমতা পাবে।

এর আগে ১৯৭০ সালের অক্টোবরে ট্রুডোর পিতা তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী পিয়েরে ট্রুডো জরুরী আইনের প্রয়োগ ঘটিয়েছিলেন। এবার দ্বিতীয় বারের মতো এ আইনের প্রয়োগ ঘটানো হয়েছে।

কোভিড- ১৯ মোকাবিলায় টিকাদান সংক্রান্ত সরকারের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে কানাডায় বেশকিছু দিন ধরে ট্রাক চালকদের নেতৃত্বে ‘ফ্রিডম কনভয়’ নামে বিক্ষোভ চলছে। এ বিক্ষোভে অচল হয়ে পড়েছে দেশটির রাজধানী অটোয়াসহ আরও কিছু এলাকা। এ প্রেক্ষিতে অন্টারিওতে সরকার জরুরি অবস্থা জারি করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.