কাউন্সিল অব ইউরোপ থেকে বের হয়ে গেছে রাশিয়া

ইউরোপের শীর্ষ মানবাধিকার সংস্থা ‘কাউন্সিল অব ইউরোপ’ থেকে রাশিয়া বের হয়ে গেছে বলে জানিয়েছে দেশটির পররাষ্ট্রবিষয়ক মন্ত্রণালয়। বৃহস্পতিবার (১০ মার্চ) বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

এক বিবৃতিতে দেশটির মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন ও নেটো দেশগুলো ‘রাশিয়ার প্রতি বন্ধুভাবাপন্ন নয়’। এই রাষ্ট্রগুলো ‘কাউন্সিল অব ইউরোপ’ ধ্বংস করার উদ্দেশ্যে এবং ইউরোপের সাধারণ মানবাধিকার ও আইনি পরিস্থিতি ধ্বংস করতে কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর ১৯৪৯ সালে এই সংস্থার প্রতিষ্ঠা হয়। ইউরোপের সবচেয়ে পুরনো এই রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠান মহাদেশে মানবাধিকার, গণতন্ত্র ও আইনের শাসন বজায় রাখার উদ্দেশে কাজ করে।

উল্লেখ্য, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিনের সামরিক অভিযান ঘোষণার কয়েক মিনিট পরেই ইউক্রেনে বোমা ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা শুরু করে রুশ সেনারা। এরপর থেকে ইউক্রেন ও রাশিয়ার মধ্যে যুদ্ধ চলছে। ইতোমধ্যে ইউক্রেনের ২০ লাখের বেশি মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছেন। এ ছাড়া দেশটির দুই হাজারের বেশি বেসামরিক নাগরিক নিহত এবং রাশিয়ার ১২ হাজার সৈন্য নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে ইউক্রেন। তবে রাশিয়া বলছে, যুদ্ধে তাদের ৪৯৮ সৈন্য নিহত এবং ইউক্রেনের ২ হাজার ৮৭০ জনের বেশি ইউক্রেনীয় সেনা নিহত হয়েছেন।

এ ছাড়া জাতিসংঘ জানিয়েছে, রুশ হামলায় এখন পর্যন্ত ইউক্রেনের ৪৭৪ বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্র বলছে, ইউক্রেনে আনুমানিক ৫ থেকে ৬ হাজার রুশ সেনা নিহত হয়েছে।

বার্তাবাজার/জে আই

Leave a Reply

Your email address will not be published.