এতিমখানায় সন্ত্রাসী হামলায় তত্ত্বাবধায়কসহ আহত ৩ 

কুমিল্লার মুরাদনগরে এক সন্ত্রাসী হামলার ঘটনার পর রহিমপুর হেজাজিয়া এতিমখানার তত্ত্বাবধায়ক কাজী মো. লোকমানসহ তিনজন গুরুতর আহত হয়েছে।

 

আজ রোববার (২৭ ফেব্রুয়ারি) রাতে মুরাদনগর থানার ওসি আবুল হাসিম এই তথ্য নিশ্চিত করেন। এর আগে শনিবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) রাতে মুরাদনগর ও কোম্পানীগঞ্জ সড়কের রহিমপুর এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে। পরে এ ঘটনার প্রতিবাদে হেজাজিয়া এতিমখানার শত শত শিক্ষার্থী হামলাকারীদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে সড়কে আন্দোলন ও বিক্ষোভ করে।

 

 

এদিকে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায় এবং পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার৬ চেষ্টা করে । ওই সন্ত্রাসী হামলায় কাজী লোকমান (৫২)ও তার ছেলে মেহেদী হাসান (২৩) এবং একই গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য ময়নাল হোসেন (৬৫) গুরুতর আহত হয়। এ ঘটনায় রোববার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। একই সঙ্গে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

 

আহত কাজী লোকমান বলেন, রহিমপুর গ্রামের ইউপি সদস্য আশরাফ দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় সন্ত্রাসী এবং চাঁদাবাজিসহ নানা অপরাধ কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে। আমি প্রতিবাদ করায় তার সঙ্গে আমার বিরোধ সৃষ্টি হয়।

 

অভিযুক্ত ইউপি সদস্য আশরাফ জানান, পূর্বে আমার এক সমর্থককে মারধর করা হয়েছে। এর পাল্টা জবাবে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে।

 

এ বিষয়ে মুরাদনগর থানার ওসি আবুল হাসিম জানান, রহিমপুর গ্রামে দুটি গ্রুপের মাঝে বিরোধ অনেক দিন থেকেই ছিলো। আমরা সতর্ক আছি পুনরায় যেন কোনো সংঘর্ষের ঘটনা না ঘটে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

 

বার্তাবাজার/আর এম সা

Leave a Reply

Your email address will not be published.