একসঙ্গে তিন মিশন কাজ করছে হাদিসুর মরদেহ দেশে আনতে

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক (পূর্ব-ইউরোপ) শিকদার বদিউজ্জামান বলেছেন, ইউক্রেনে বাংলাদেশি জাহাজ ‘বাংলার সমৃদ্ধি’তে রকেট হামলার ঘটনায় নিহত হাদিসুর রহমানের মরদেহ দেশে ফেরাতে একসঙ্গে তিনটি মিশন কাজ করছে।

বুধবার (৯ মার্চ) দুপুরে রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বাংলার সমৃদ্ধি জাহাজের ২৮ নাবিক রোমানিয়া থেকে বাংলাদেশে ফেরত আসার পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় তিনি বলেন, জাহাজের থার্ড ইঞ্জিনিয়ার হাদিসুর রহমানের মরদেহ এখনও ইউক্রেনে রয়েছে। যত দ্রুত সম্ভব তার মরদেহ দেশে ফেরাতে আমরা প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেব। তবে কত দিনের মধ্যে মরদেহ নিয়ে আসা সম্ভব হবে, তার সঠিক সময় বলা মুশকিল।ইউক্রেনে যুদ্ধ চলার কারণে সেখানে কেউ প্রবেশ করতে পারছেন না। তবে তার মরদেহ দেশে আনতে আমরা যথেষ্ট আন্তরিক। বিষয়টি নিয়ে ইতোমধ্যে আমাদের তিনটি মিশন একসঙ্গে কাজ করছে।

শিকদার বদিউজ্জামান বলেন, আমরা অত্যন্ত আনন্দিত। কারণ, ইউক্রেনে যুদ্ধাবস্থা থেকে তাদের উদ্ধার করে দেশে ফিরিয়ে আনতে পেরেছি। পোল্যান্ড, সোমালিয়া ও অস্ট্রিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের দূতাবাসসহ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় তাদের উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে বলে তিনি জানান।

হাদিসুরের পরিবারকে ক্ষতিপূরণের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা তার মরদেহ দেশে ফেরানোর ব্যাপারে কাজ করছি, সেটা সম্পন্ন হোক। তারপর ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের জন্য যা করণীয়, তা আমরা করব।’

শিকদার বদিউজ্জামান বলেন, দেশে ফেরা ২৮ নাবিক পুরোপুরি সুস্থ আছেন।তবে তারা ট্রমাটাইজড। তাদের মেডিকেল টেস্টসহ প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে পরিবারের কাছে যাওয়ার সুযোগ দেওয়া হবে।’

এর আগে ইউক্রেনে আটকে পড়া জাহাজ ‘বাংলার সমৃদ্ধি’র ২৮ নাবিক দেশে পৌঁছান।

বুধবার (৯ মার্চ) দুপুর ১২টায় বহনকারী টার্কিশ এয়ারলাইনসের টিকে-৭২২ ফ্লাইটে নাবিকরা হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান।

রোমানিয়ার রাজধানী বুখারেস্ট থেকে নাবিকদের ফ্লাইটটি ইস্তাম্বুল-দুবাই হয়ে আজ ঢাকায় অবতরণ করে।

এ ছাড়া জাহাজে হামলার ঘটনায় মারা যাওয়া থার্ড ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মাদ হাদিসুর রহমানের মরদেহ ইউক্রেনের একটি বাংকারের ফ্রিজারে রাখা হয়েছে। সুবিধাজনক সময়ে মরদেহটি দেশে ফিরিয়ে আনা হবে বলে জানা গেছে।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যকার যুদ্ধের কারণে ইউক্রেনে আটকা পড়ে বাংলার সমৃদ্ধি। ২ মার্চ রাত ৯টা ২৫ মিনিটে জাহাজটি হামলার শিকার হয়।

হামলার কবলে পড়া ‘বাংলার সমৃদ্ধি’র জীবিত ২৮ নাবিককে গত ৩ মার্চ বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ছয়টার দিকে ইউক্রেনের একটি বাংকারে নেওয়া হয়। পরে তাদের নিরাপদে রোমানিয়ায় নিয়ে যাওয়া হয়।

বার্তাবাজার/জে আই

Leave a Reply

Your email address will not be published.