উখিয়া ক্যাম্পে নারী এনজিও কর্মীকে কুপালো রোহিঙ্গা, হামলাকারী আটক

কক্সবাজারের উখিয়া রাজাপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ডেইজি বড়ুয়া নামের এক এনজিও কর্মীকে এলোপাতাড়ি কুপিয়েছে এক রোহিঙ্গা। হামলায় ব্যবহৃত দা’সহ অভিযুক্ত মোহাম্মদ আলম (৩৫) কে গ্রেফতার করেছে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (১৪ এপিবিএন)। সে ক্যাম্প-২, ব্লক-বি, (সাব-ব্লক- বি/৫) এর সামশুল আলমের ছেলে।

আহত ডেইজি বান্দরবান জেলার নাইক্যংছড়ি থানার ঘুমধুম এলাকার সাধন বড়ুয়ার মেয়ে। তিনি মুক্তি এনজিওতে কর্মরত রয়েছেন।

মঙ্গলবার (২৮ জুন) সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ উপজেলার রাজাপালং ইউনিয়নের রোহিঙ্গা ক্যাম্প ২/ওয়েস্ট সিআইসি অফিসের বিপরীতে মুক্তি স্কুলের সামনে এই ঘটনা ঘটেছে বলে নিশ্চিত করেছেন ১৪ এপিবিএন এর অধিনায়ক পুলিশ সুপার নাঈমুল হক।

তিনি জানান, রোহিঙ্গা মোহাম্মদ আলম (৩৫) নামের এক ব্যক্তি সকালে বিনা কারনে এনজিও কর্মী ডেইজিকে দা’দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ডান হাত ও বামহাতের কব্জি, পিঠে এবং মাথায় মারাত্বক জখম করে।

ঘটনার সংবাদ পেয়ে এপিবিএন সদস্যরা ঘটনা স্থলে পৌছে আহত ডেইজিকে উদ্ধার করে তাৎক্ষনিক ভাবে এমএসএফ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসা জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল প্রেরণ করেন।

এদিকে ঘটনার কিছুক্ষন পর এপিবিএন এর আরেকটি দল অভিযান চালিয়ে হামলাকারীকে হামলায় ব্যবহৃত দা’সহ গ্রেফতার করে। আইনী প্রক্রিয়া শেষে তাকে উখিয়া থানায় হস্তান্তর করেছে বলে নিশ্চিত করেছেন এই এপিবিএন কর্মকর্তা।

কক্সবাজার সদর হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক (আরএমও) আশেকুর রহমান বলেন, আহত শিক্ষিকার পা, মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে গুরুতর জখম হয়েছে। তাঁর অবস্থা এখনও শংকামুক্ত নয়।

বার্তাবাজার/এম.এম

Leave a Reply

Your email address will not be published.