ইসলামপুরে ঝুঁকিপূর্ণ সেতু দিয়ে যান চলাচল, দূর্ঘটনা এড়াতে বাঁশের রেলিং

দুর্ঘটনা এড়াতে জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলায় একটি সেতুতে বাঁশের রেলিং দেওয়া হয়েছে। সেতুটি উপজেলার গোয়ালেরচর ইউনিয়নের কাছিমারচর-বকশীগঞ্জ সড়কে মহলগিরী খালের ওপর নির্মিত। স্থানীয়দের মতে প্রায় দশ বছর ধরে সেতুটি রেলিং ভাঙা থাকায় এলজিইডির পক্ষ থেকে কোন প্রদক্ষেপ না নেওয়ায় স্থানীয়রা এ বাঁশের রেলিং স্থাপন করেন।

জানা গেছে, সেতুটির রেলিং ভেঙে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে বেশ কয়েক বছর আগে। ঝুঁকিপূর্ণ এই সেতুর ওপর দিয়েই ছোট বড় যানবাহনসহ স্থানীয় বাসিন্দারা চলাচল করেন। হাজারো মানুষের চলাচলের জন্য নির্মিত এই সেতুর এমন দশায় নেই কোনো কার্যকরী পদক্ষেপ।

সরেজমিনে দেখা গেছে, ইসলামপুরের কাছিমারচর ভায়া বকশীগঞ্জ সড়কে উপজেলার গোয়ালেরচর ইউনিয়নে মহলগিরী বাজারের দক্ষিণ পাশে খালের ওপর নির্মিত সেতুর রেলিং ভেঙে গেছে অনেক দিন আগে। দীর্ঘদিনেও সংস্কার না করায় দুর্ঘটনা এড়াতে সম্প্রতি সেতুতে বাঁশ দিয়ে রেলিং দিয়েছেন স্থানীয়রা। সেতুটি দিয়ে চলাচল করেন গোয়ালেরচর উচ্চবিদ্যালয়, সভারচর উচ্চবিদ্যালয়, সভারচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, সভারচর মহাবিদ্যালয়সহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের হাজারো শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও কর্মচারী।

গোয়ালেচর বাজারের কাঁচামাল ব্যবসায়ী আলতাফ হোসেন বলেন, খুবই কষ্ট হয় এ ভাঙা সেতুর উপর দিয়ে মালামাল নিয়ে আসতে । প্রশাসনের পক্ষ থেকে দীর্ঘদিনেও সেতুটি সংস্কার না করায় আমরা স্থানীয়ভাবে বাঁশের রেলিং বেঁধে দিয়েছি। অটোচালক সুলাইমান সেখ বলেন, অটো চালিয়ে এই সেতু পার হতে ভয় লাগে। বাঁশের রেলিং থাকায় চলাচলে কিছুটা সাহস পাই।

ভ্যানচালক সুজন মিয়া বলেন, অন্তত ১০ বছর আগে সেতুটির রেলিং ভেঙে গেছে। এই সেতু দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ চলাচল করে। কিন্তু দীর্ঘদিনও মেরামত করা হয়নি।

গোয়ালেরচর ইউপির চেয়ারম্যান আব্দুর রহিম বাদশা বলেন, দীর্ঘদিন ধরে ব্রিজটির রেলিং ভাঙা রয়েছে। দুর্ঘটনা এড়াতে বাঁশের রেলিং নির্মাণ করা হয়েছে।

ইসলামপুর উপজেলা এলজিইডির প্রকৌশলী মো. আমিনুল হক বলেন, ইতিমধ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে কাগজপত্র ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দপ্তরে প্রেরণ করা হয়েছে।

 

ইয়ামিন/বার্তাবাজার/এম আই

Leave a Reply

Your email address will not be published.