ইউক্রেনে আটক ৫ বাংলাদেশির তথ্য সংগ্রহ করছি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ইউক্রেনে ৫ বাংলাদেশির বিষয়ে খোজ-খবর ও তথ্য সংগ্রহ করছে বলে জানিয়েছেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। শনিবার (৫ মার্চ) জাতীয় প্রেসক্লাবে সিলেত রত্ন ফাউন্ডেশন আয়োজিত সি এম তোফায়েল সামীর স্মরণসভা শেষে সংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

ইউক্রেনে ৫ বাংলাদেশিকে আটকে রেখে নির্যাতন করা হচ্ছে—রাশিয়া দূতাবাসের ফেসবুক পেজে শেয়ার করা এ সংক্রান্ত একটি ভিডিওর বিষয়ে জানতে চাইলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমি জানি না, এ বিষয়ে আমরা খোঁজ-খবর নিচ্ছি। আমাদের দূতাবাসের কর্মকর্তারা বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন। ইউক্রেনে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের প্রতি বিরূপ আচরণ করা হচ্ছে বলে মনে হচ্ছে।

তিনি আর বলেন, ইউক্রেনে আটকে পড়া বাংলাদেশির তথ্য আমরা জানতে চেষ্টা করছি, তাদের নিরাপদে পোল্যান্ড ও রোমানিয়ায় ফিরিয়ে নেওয়া হচ্ছে। ওখান থেকে তাদের দেশে ফিরিয়ে আনা হবে।

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রকল্প ও রাশিয়ার সঙ্গে ব্যাংক লেনদেন বন্ধ হবার সম্ভাবনা রয়েছে কিনা—এমন এক প্রশ্নের জবাবে ড. মোমেন বলেন, এটি আমি জানি না এবং এ সম্পর্কে বলার সময় এখনো আসেনি।

অন্য এক প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা যুদ্ধ চাই না, শান্তি চাই। এজন্যই তো আমরা জাতিসংঘে ভোটদান থেকে বিরত থেকেছি।

তিনি আরও বলেন, ইউক্রেনে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের উদ্ধারে ভারতও সহযোগিতা করছে। আমরা তাদের সহযোগিতা চেয়েছি।

শুক্রবার ঢাকাস্থ রাশিয়ার দূতাবাস তাদের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে, এতে দেখা যায়— ইউক্রেনের সেনাদের হাতে জিম্মি বাংলাদেশিরা তাদের উদ্ধারের জন্য আকুতি জানাচ্ছেন।

ভিডিওতে রিয়াদুল মালিক নামে এক বাংলাদেশি নিজের পরিচয় দিয়ে জানান, সেখানে আরও কয়েকজন বাংলাদেশি আছেন। একজন দরজায় পাহারা দিচ্ছেন। তাদের সবার মোবাইল ফোন কেড়ে নেওয়া হয়েছে। একটি মোবাইল তারা লুকিয়ে রাখতে পেরেছেন।

জার্মান সংবাদমাধ্যম ডয়চে ভেলের বাংলা বিভাগও বলেছে, ইউক্রেনের কিভারতিসি শহরের একটি অভিবাসী শিবিরে আটকে আছেন পাঁচ বাংলাদেশিসহ শতাধিক বিদেশি।

বার্তাবাজার/জে আই

Leave a Reply

Your email address will not be published.