September 26, 2022

শেষ দিকে কেবল একটা কথাই মনে হচ্ছিল, ইস! যদি আরেকজন ব্যাটার ক্রিজে থাকতো। তাহলে হয়তো ফলটা বাংলাদেশের পক্ষে আসতো। কিন্তু সেটা হয়নি। বাংলাদেশও অল্পের জন্য হেরে গেছে। বাংলাদেশ নারী দলকে ৪ রানের ব্যবধানে হারিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

শুক্রবার (১৮ মার্চ) মাউন্ট মঙ্গানুইয়ে নারী বিশ্বকাপে নিজেদের চতুর্থ ম্যাচে মাঠে নামে বাংলাদেশ। টস জিতে আগে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশ অধিনায়ক নিগার সুলতানা। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৪০ রান সংগ্রহ করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। জবাবে ৩ বল বাকি থাকতে ১৩৬ রানে অলআউট হয়ে যায় লাল-সবুজ বাহিনীরা।

আজ বাংলাদেশের বোলিং ও ফিল্ডিং ছিল দুর্দান্ত। তিনটি রানআউট ছিল এবং সবকটি সরাসরি থ্রোতে। সালমা খাতুন ২টি, নাহিদা আক্তার ২টি এবং জাহানারা আলম, রুমানা আহমেদ ও রিতু মনি একটি করে উইকেট শিকার করেন। এর মধ্যে সালমা ও নাহিদা ১০ ওভার বোলিং করে মাত্র ২৩ রান খরচায় উইকেটগুলো নেন। ক্যারিবীয় ব্যাটারদের মধ্যে সর্বোচ্চ ৫৩ রান করেন শিমেইন ক্যাম্পবেলে। এছাড়া হায়লে ম্যাথুস ১৮, ডেনড্রা ডট্টিন ১৭ ও এফাই ফ্লেচার ১৭ রান করেন।

পরে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই শারমিন সুলতানাকে হারায় বাংলাদেশ। তখন ফারজানা আক্তারকে নিয়ে জুটি ধরেন অপর ওপেনার শারমিন আক্তার। কিন্তু জুটি বেশিদূর আগায়নি। দলীয় ৩০ রানের সময় ১৭ রান করে ফিরে যান শারমিন। এরপর অধিনায়ক নিগার সুলতানাকে সঙ্গে নিয়ে ইনিংস গড়ে তোলার চেষ্টা করেন ফারজানা। দলীয় ৬০ রানের সময় ফারজানাও বিদায় নেন। তার ব্যাট থেকে এসেছে ২৩ রান। স্কোরবোর্ডে কোনো রান যোগ করার আগে আরও দুটি উইকেট পড়ে যায়। অভিজ্ঞ সালমা খাতুন এসে সঙ্গ দেওয়ার চেষ্টা করেন। নিগার যতক্ষণ ছিল, মনে হচ্ছিল ম্যাচটা বাংলাদেশ জিততে যাচ্ছে। কিন্তু ব্যক্তিগত ২৫ রান করে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন নিগার। সালমাও ২৩ রান করে আউট হয়ে যান। এরপরই মূলত ম্যাচ থেকে ছিটকে পরে বাংলাদেশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.