October 2, 2022

চলমান ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ ক্রমেই নতুন মোড় নিচ্ছে। দ্বিতীয় বারের মতো ইউক্রেনে হাইপারসনিক ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালালো রাশিয়া। হামলায় ধ্বংস হয়েছে ইউক্রেনের দক্ষিণাঞ্চলের একটি তেল সংরক্ষণাগার। এ তথ্য নিশ্চিত করেছে রুশ কর্তৃপক্ষ। আল-জাজিরার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রণালয় জানায়, মাইকোলাইভ অঞ্চলে কোস্ত্যন্তিনিভকা বসতির কাছে হামলা চালানো হয়েছে হাইপারসনিক ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে। হামলায় ইউক্রেনের সশস্ত্র বাহিনীর একটি জ্বালানি সংরক্ষণ সাইট ধ্বংস হয়েছে।

এনিয়ে ইউক্রেনে দ্বিতীয় বারের মতো হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালালো মস্কো। এর আগে এ ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে হামলা চালানো হয় ইউক্রেনের পশ্চিমাঞ্চলের একটি অস্ত্রাগারে।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ইগর কোনাশেনকভ জানান, হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র হামলার মাধ্যমে পশ্চিম ইউক্রেনের একটি ভূগর্ভস্থ অস্ত্রের গুদাম ধ্বংস করে দিয়েছে মস্কো। গুদামটিতে ইউক্রেনের সেনাদের বিভিন্ন ধরনের অস্ত্র রাখা ছিল বলেও জানান তিনি।

এর আগে কখনোই যুদ্ধে এ ধরনের অস্ত্র ব্যবহারের কথা স্বীকার করেনি রাশিয়া। রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে হামলা শুরুর পর ওই দিনই প্রথম কিনজাল নামের হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রের ব্যবহার করা হয়।

জানা গেছে, রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন কিনজাল হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রকে একটি যথাযথ বা প্রকৃত অস্ত্র হিসেবে অভিহিতি করেছেন। যা যেকোনো দেশের আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাকে এড়িয়ে শব্দের চেয়ে পাঁচ গুণ বেশিতে ছুটতে পারে।

বার্তাবাজার/না. সা.

Leave a Reply

Your email address will not be published.