আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম নিম্নমুখী

আন্তর্জাতিক বাজারে গত কয়েক দিন ধরেই তেলের দাম নিম্নমুখী। সোমবার (১৪ মার্চ) তেলের দাম ব্যারেল প্রতি প্রায় চার ডলার কমেছে। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধের জন্য ব্শ্বিজুড়ে কূটনৈতিক প্রচেষ্টা বাড়ছে। তাতেই তেলের দামে বড় পতন বলে জানা গেছে। রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

জানা গেছে, আন্তর্জাতিক বেঞ্চমার্ক ব্রেন্ট ক্রুডের দাম ব্যারেল প্রতি তিন দশমিক পাঁচ ডলার বা দুই দশমিক সাত শতাংশ কমে ১০৯ দশমিক ৬২ ডলারে দাঁড়িয়েছে।

অন্যদিকে ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট ক্রুড ফিউচারের দাম ব্যারেল প্রতি তিন দশমিক ১০ ডলার বা দুই দশমিক আট শতাংশ কমে ১০৬ দশমিক ২৩ ডলারে দাঁড়িয়েছে।

ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসন শুরুর পর থেকেই বিশ্ববাজারে লাফিয়ে বেড়ে যায় জ্বালানি তেলের দাম। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রাশিয়া ইউক্রেনে আগ্রাসন শুরু করে। এরপর তেলের দাম ৪০ শতাংশ বেড়ে ১৪ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ হয়।

অবশ্য রাশিয়া ইউক্রেনে হামলা করলে জ্বালানি তেলের দাম একশ ডলার ছাড়িয়ে যাবে এমন আশঙ্কা আগেই প্রকাশ করেছিলেন বাজার বিশেষজ্ঞরা। ফেব্রুয়ারি মাসের মাঝামাঝি সময়ে নিউইয়র্কভিত্তিক ফরেন এক্সচেঞ্জ কোম্পানি ওনাডার বিশ্লেষক অ্যাডওয়ার্ড মোয়া বলেছিলেন, ইউক্রেনে আক্রমণ হলে ব্রেন্ট ক্রুডের দাম ১০০ ডলার ছাড়াতে কোনো বাধা থাকবে না। তার মতে, ইউক্রেন পরিস্থিতি সম্পর্কিত খবরাখবরের জন্য তেলের বাজার খুবই অস্থির ও সংবেদনশীল থাকতে পারে।

বার্তাবাজার/জে আই

Leave a Reply

Your email address will not be published.