সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২২

মোংলা বন্দরের হাড়বাড়ীয়া এলাকায় আবারো একটি কয়লা বোঝাই কার্গো জাহাজ ডুবে গেছে। বন্দরের পশুর চ্যানেলের হাড়বাড়ীয়া-০৪ নম্বর এ্যাংকোরেজ এলাকায় ডুবো চরে আটকে তলা ফেটে কার্গোটি ডুবে যায়। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১ টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

ওই সময় দুর্ঘটনাকবলিত কার্গো জাহাজের ৮ ষ্টাফ ও ২ নিরাপত্তা কর্মীকে উদ্ধার করে কোস্ট গার্ড। উদ্ধারকৃতরা সুস্থ ও স্বাভাবিক রয়েছে বলে জানায় কোস্ট গার্ড। এর আগে গত ১৬ নভেম্বর হাড়বাড়ীয়ায় কয়লা বোঝাই একটি বাল্কহেড ডুবে ছিলো।

ডুবে যাওয়া কার্গো জাহাজ এম,ভি নাওমী’র মাস্টার মোঃ আজিজুল হক জানান, মোংলা বন্দরের হাড়বাড়ীয়া-০৫ নম্বর এ্যাংকোরেজে থাকা বিদেশী বাণিজ্যিক জাহাজ এম,ভি ‘জর্ডান এস’ থেকে বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টার দিকে ৬শ মেঃ টন কয়লা বোঝাই করে এম,ভি নাওমী কার্গো জাহাজ। এরপর বিদেশী জাহাজ থেকে ছেড়ে এসে হারবাড়ীয়া-০৪ নম্বর এ্যাংকোরেজ এলাকায় পৌঁছালে ডুবে চরে আটকে যায় কার্গোটি। ডুবো চরে আটকে গেলে তখন তলা ফেটে ইন্জিন রুমে পানি ঢুকতে শুরু হয়। এরপর কিছু সময়ের মধ্যেই কার্গোটি চ্যানেলের পশ্চিম পাড়ের চরে ডুবে যায়।

ওই সময় খবর পেয়ে কোস্ট সদস্যরা জাহাজের ৮ ষ্টাফ ও ২ নিরাপত্তা কর্মীকে উদ্ধার করেন। এ ঘটনায় দুর্ঘটনাকবলিত জাহাজের মাস্টার মোঃ আজিজুল হক শুক্রবার রাতে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেছেন।

এ বিষয়ে মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের ডেপুটি হারবার মাস্টার ক্যাপ্টেন শাহাদাৎ বলেন, বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে হাড়বাড়ীয়া এলাকায় ডুবে চরে আটকে তলা ফেটে ডুবে যাওয়া কার্গোটি উদ্ধারে শুক্রবার মালিক পক্ষকে চিঠি দেয়া হয়েছে। মালিক পক্ষকে তিনদিনের মধ্যে উদ্ধার তৎপরতা শুরুর নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আশা করছি শনিবারই তারা কাজ শুরু করবেন।

তিনি আরো বলেন, ঘটনাস্থল পরিদর্শন গিয়ে জানা গেছে কার্গোটিতে সাড়ে ৬শ মেঃ টন কয়লা বোঝাই ছিলো। আর কার্গোটি পুরোপুরি ডুবেনি, চরে দুর্ঘটনাকবলিত হওয়ায় আংশিক নিমজ্জিত হয়েছে বলেও জানান তিনি। তিনি বলেন, এটি মুল চ্যানেলের অনেক বাইরে রয়েছে, ফলে এ চ্যানেল দিয়ে নৌযান চলাচলে কোন ধরণের প্রতিবন্ধকতা নেই।

উল্লেখ্য, গত ১৬ নভেম্বর হাড়বাড়ীয়া-০৮ ও ০৯ নম্বর এ্যাংকোরেজের মাঝামাঝি এলাকায় একটি বিদেশী জাহাজের সাথে ধাক্কা লেগে ৬ শ থেকে সাড়ে ৬শ মেঃ টন কয়লা নিয়ে ডুবে যায় বাল্কহেড এম,ভি ফারদিন।

কামরুজ্জামান/বার্তাবাজার/এম আই

Leave a Reply

Your email address will not be published.