September 26, 2022

রাজধানী ঢাকার মিরপুরে জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের বিপক্ষে দুই ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে জয় পেয়েছে আফগানিস্তান। খেলার প্রথমে ব্যাট করে ৯ উইকেট হারিয়ে মাত্র ১১৫ রান তুলতে সমর্থ হয় টাইগাররা। ম্যাজটিতে ১৭ ওভার ৪ বল ব্যাট করে ২ উইকেট হারিয়ে জয় তুলে নেয় আফগানিস্তান। তারা ২ উইকেট হারিয়ে করে ১২১ রান। বাংলাদেশের হয়ে একটি করে উইকেট ‍তুলে নিয়েছেন মেহেদি হাসান ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

তবে আফগানদের এই জয়ে এখন সিরিজ ১-১ সমতায় শেষ হলো। সিরিজের প্রথম ম্যাচে জয় পেয়েছিল বাংলাদেশ। আফগানিস্তানের হয়ে সর্বোচ্চ ৫৯ রান করেছেন ওপেনার হজরতউল্লাহ জাজাই। দলের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৪৭ রান করেছেন ওসমান গনি। ওয়ান ডাউনে খেলতে নামা গনি দলের জয়ে বড় অবদান রাখেন। এর আগে ম্যাচটিতে টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ২০ ওভার ব্যাট করে ৯ উইকেট হারিয়ে মাত্র ১১৫ রান করতে সমর্থ হয় বাংলাদেশ। এর মাধ্যমে ২০ ওভারের খেলায় আফগানদের বিপক্ষে নতুন করে সর্বনিম্ন রান করেছে বাংলাদেশ।

এই দিকে টাইগারদের হয়ে ম্যাচটিতে সর্বোচ্চ ৩০ রান করেছেন শততম ম্যাচ খেলতে নামা মুশফিকুর রহিম। তরে টি-টোয়েন্টিতে আফগানিস্তানের বিপক্ষে এর আগে সর্বনিম্ন রান ছিল ১২২। ২০১৮ সালে ভারতের দেরাদুনে আফগানদের বিপক্ষে মাত্র ১২২ রানেই গুটিয়ে যায় বাংলাদেশ। সেবার আফগানিস্তানের বিপক্ষে টাইগাররা ১৬৮ রানের টার্গেট নিয়ে খেলতে নেমেছিল।

অপরদিকে আজ শুরুতেই ব্যাটিংয়ে সুবিধা করতে পারেনি বাংলাদেশ। দলের অন্যতম ভরসা লিটন দাস দ্বিতীয় ম্যাচে করেছেন মাত্র ১৩ রান। বেশি আগ্রাসী হতে গিয়ে উইকেট বিলিয়ে আসেন তিনি। বিপিএলের হার্ডহিটার মুনিম শাহরিয়ার তার দ্বিতীয় আন্তর্জাতিকেও নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি। আউট হয়ে যান মাত্র ৪ রান করে।

গত কয়েক ম্যাচ ধরে ব্যর্থ ওপেনার নাঈম শেখও ভালো কিছু করে দেখাতে পারেননি। অবশ্য আজ ভাগ্য বাদসেধেছে। ২ বাউন্ডারিতে ১৯ বলে ১৩ রান করা এই ওপেনার রানআউট হয়ে ফেরেন। এমন মুহূর্তে দলকে টেনে নেওয়ার দায়িত্ব এসে পড়ে দেশসেরা অলরাউন্ডার অভিজ্ঞ সাকিব আল হাসানের ওপর। কিন্তু তিনিও ব্যর্থ। ১৫ বলে ৯ রানে শেষ হয়ে যায় তার ইনিংস।

ম্যাজটিতে সাকিব যখন আউট হন তখন বাংলাদেশ মাত্র ৪৫ রান তুলতেই ৪ উইকেট হারায়। এরপর মুশফিক ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ মিলে দলের হাল ধরার চেষ্টা করেন। বলা যায় কঠিন বিপদের সময় তারা কিছুটা সফলও হন। কিন্তু দলীয় ৮৮ রানের সময় ২১ রান করে মাহমুদউল্লাহ এলবিডব্লিউ হয়ে সাজঘরে ফেরেন। তিনি বিদায় নেওয়ার পর মুশফিক ৩০ রান করে বিপজ্জনক বোলার ফজলহক ফারুকির বলে ক্যাচ আউট হন। এরপর ক্রিজে আসা মেহেদি হাসান প্রথম বলেই ফারুকির বলে বোল্ড আউট হন।

এরপর, দলের সর্বশেষ স্বীকৃত ব্যাটসম্যান আফিফ হোসেন ১০৪ রানের সময় ব্যক্তিগত ৭ রান করে ক্যাচ আউট হয়ে সাজঘরে ফিরে যান। নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে শরিফুল ইসলাম কোনো রান করার আগে ফারুকির বলে বোল্ড হন। আফগানদের হয়ে সর্বোচ্চ তিনটি করে উইকেট তুলে নিয়েছেন ফজলহক ফারুকি ও আজমতউল্লাহ ওমরজাই।

বার্তাবাজার/এম.এম

Leave a Reply

Your email address will not be published.