প্রধান শিক্ষকের আত্নহত্যা

লিপু খন্দকার, কুমারখালী :
কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার যদুবয়রা ইউনিয়নের কেশবপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গলায় ফাঁস দিয়ে আত্নহত্যা করছেন। মঙ্গলবার ভোড়ে নিদেনতলা শশুড় বাড়িতে বারান্দার গ্রিলের সাথে রশি বেঁধে গলায় ফাঁস দিয়ে তিনি আত্মহত্যা করেন।

নিহত শিক্ষক বাগুলাট ইউনিয়নের শালঘর মধুয়া গ্রামের রেজাউল ইসলাম (৫৬)। তিনি কেশবপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও বাংলাদেশ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির কুমারখালী উপজেলার সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

এলাকাবাসী জানান, শিক্ষক নেতা রেজাউল ইসলাম ১৯৯০ সাল থেকে কেশবপুরের নিদেনতলা তার শশুড় বাড়িতে বসবাস করতেন । তিনি ও তার স্ত্রী দুজনেই প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করেন। তাদের দুটি ছেলে সন্তান রয়েছে। পারিবারিক অশান্তির কারনে তিনি আত্নহত্যা করতে পারেন বলে তারা জানান। তারা আরো জানান মঙ্গলবার ভোড়ে রেজাউল ইসলাম নামাজ পড়ে এসে তার বসবাসরত ঘরের বারান্দার গ্রীলের সাথে রশি বেঁধে গলায় ফাঁস দেয়। সকালে গ্রীলের সাথে তাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে পরিবারের ও আশেপাশের লোকজন নিথর মরদেহ রশি কেটে নামান। পরবর্তীতে পুলিশ এসে লাশ দাফনের অনুমতি দেয়।

কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, লাশের গায়ে কোন আঘাতের চিহ্ন নেই। যেকারণে পরিবার ও এলাকাবাসীর অনুরোধে মরদেহ দাফনের অনুমতি দেয়া হয়েছে।

The post প্রধান শিক্ষকের আত্নহত্যা appeared first on শৈলবার্তা.

Leave a Reply

Your email address will not be published.