ঝিনাইদহ শৈলকুপায় দু’পক্ষের সংঘর্ষে ২০ জন আহত, বাড়ীঘর ভাংচুর

ঝিনাইদহের চোখ-
ঝিনাইদহের শৈলকুপায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন আহত হয়েছে। ভাংচুর করা হয়েছে অন্তত ১৮-২০ টি বাড়িঘর। গেল রাতে শৈলকুপা উপজেলার কামান্না ও বারইহুদা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
স্থানীয়রা জানায়, আধিপত্য বিস্তার নিয়ে কামান্না গ্রামের রশিদ মেম্বর ও নাহিদ মোল্লার সমর্থকদের মাঝে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। গত বুধবার রশিদ মেম্বরের ছেলে ফারদিনকে মারধর করে নাহিদ মোল্লার সমর্থক আমির হোসেনের ছেলে হামিদুর রহমান। এ ঘটনায় শুক্রবার বিকেলে হামিদুরের চাচাতো ভাই নাঈম হোসেনকে মারধর করে ফারদিন ও তার ভাই ফাহিম। মারধরের খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে নাহিদ মোল্লার সমর্থকরা রশিদ মেম্বরের সমর্থকদের বাড়িতে হামলা চালায়। এতে উভয় পক্ষের মাঝে সংঘর্ষ বেঁধে যায়।
এ ঘটনার খবর পার্শবর্তী বারইহুদা গ্রামে পৌঁছালে সেখানেও সংঘর্ষ বেঁধে যায়। প্রায় দেড়ঘন্টা ধরে ওই দুই গ্রামে সংঘর্ষ চলে। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ২০ জন আহত হয়।

শৈলকুপা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম জানান, খবর পেয়ে শৈলকুপা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিত নিয়ন্ত্রনে আনে। আহতদের ঝিনাইদহ সদর ও শৈলকুপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

The post ঝিনাইদহ শৈলকুপায় দু’পক্ষের সংঘর্ষে ২০ জন আহত, বাড়ীঘর ভাংচুর appeared first on Jhenidaherchokh.

Leave a Reply

Your email address will not be published.