ঝিনাইদহে সাবেক জনপ্রতিনিধির অর্থের অভাবে চিকিৎসা ব্যাহত

মনজুর আলম, ষ্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহের চোখ-

অর্থের অভাবে চিকিৎসা করাতে পারছেন না ঝিনাইদহে জয়ন্তি রানী নামের সাবেক এক মহিলা মেম্বার। যে সংগ্রামী মানুষটি একসময় অন্যের ব্যথায় ব্যথিত হতেন, দুঃসময়ে লোকজনের পাশে থেকে সাহস জুগিয়েছেন, আজ তিনি নিজেই অসহায় হয়ে পড়েছেন। এক বছরের মধ্যে পাঁচটি অপারেশন ও ক্যান্সারের চিকিৎসা করাতে গিয়ে সকল অথ ব্যায় করে এমন অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে।

জয়ন্তী রানী জানান, চিকিৎসক ৬ টি কেমোথেরাপি দেবার জন্য জানালেও ৪ টি দেবার পর অর্থের অভাবে বাকি দুইটি দিতে পারছেনা। গত দুই মাস অতিবাহিত হলেও অর্থ জোগাড় করতে না পারায় চিকিৎসা নিতে না পারায় সমাজের সুহৃদ বৃত্তবানদের নিকট সাহায্য প্রার্থনা করেছেন।

জানাজায়, ঝিনাইদহ সদর উপজেলার মধুহাটি ইউনিয়নের সুতি গ্রামের মৃত দূর্গাপদ দেবরায়ের মেয়ে জয়ন্তী রানী। ১৯৯৫ সালে ইউনিয়নের ৪, ৫ এবং ৬ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষণ মহিলা মেম্বার পদে জয়ন্তী রানী নির্বাচিত হন। তার পিতার মৃত্যুর পর বিধবা মা গিতারানী ও স্বামীও এক সন্তান সুদ্বীপ্ত দীপুকে নিয়ে ভালই চলছিল। কিছুদিন পর তার স্বামীর মৃত্যুর পর অনেকটা অসহায় হয়ে পড়েন জয়ন্তী রানী। বর্তমানে বিধবা মা এবং পিতা হারা ছেলে সুদীপ্ত দীপুকে নিয়ে কোন রকম সংসার চলছিল। কিন্তু চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে একবার জরায়ুর অপারেশন করান। এরপরই শুরু হয় কষ্টের জীবন। একেএকে পাঁচবার অপারেশন করার পর সঠিক চিকিৎসা না পেয়ে একদিকে তার জীবন যেমন সঙ্কটময় হয়েছে। তেমনি অর্থ ব্যায় করে আজ নিশ্ব হয়েছেন।

এ পর্যন্ত তার চিকিৎসার জন্য গচ্ছিত সকল সম্পত্তি উজাড় করে দিয়েও কোন কূল কিনারা পাচ্ছেন না তার পরিবার। বর্তমানে সাবেক এই মেম্বারের চিকিৎসার জন্য প্রায় আড়াই লক্ষ টাকার প্রয়োজন। অর্থ সংকটের কারনে উন্নত চিকিৎসা করানো যাচ্ছে না।

অসুস্থ জয়ন্তী রানীর মা বলেন, তার মেয়ে নম্র, ভদ্র ও ভালো মেয়ে হিসেবে এলাকায় অনেক সুনাম রয়েছে। মেয়ের চিকিৎসার জন্য আমাদের পরিবারের যা কিছু ছিলো সব ব্যয় করা হয়েছে। এখন অর্থ সংকটে চিকিৎসার ব্যয় করতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। মানবিকতার দৃষ্টিতে এবং আপনাদের সন্তান হিসেবে, একজন বোন হিসেবে যার যার জায়গা থেকে যতটুকু সম্ভব সাহায্য করলে হয়তো তার চিকিৎসা করা সম্ভব হবে। আমরা সমাজের মানবিক ও বিত্তশালীদের প্রতি অনুরোধ করবো আপনাদের সামান্য সহযোগিতায় হয়তো আমাদের সন্তানটির জীবন স্বাভাবিক হয়ে যেতে পারে। তাহলে হয়তো অবুঝ পিতা হারা শিশু ছেলে তার মায়ের আদর পেয়ে বড় হবে। এজন্য সমাজের সকল বিত্তশালীদের প্রতি বিনয়ের সাথে সাহায্যের হাত বাড়ানোর অনুরোধ জানিয়ে যোগাযোগ ও সাহায্যের ঠিকানা প্রদান করেন।

যোগাযোগ ও সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা:

নাম- জয়ন্তী রানী
এ্যাকাউন্ট নং- পিটি ৭৯১২।
রুপালি ব্যাংক লিঃ–ঝিনাইদহ শাখা, ঝিনাইদহ।
মোবাইল বিকাশ নং-০১৭৪০-৭৬৯২৮৭।

The post ঝিনাইদহে সাবেক জনপ্রতিনিধির অর্থের অভাবে চিকিৎসা ব্যাহত appeared first on Jhenidaherchokh.

Leave a Reply

Your email address will not be published.